নয়াদিল্লি: অসমের নাগরিকপঞ্জির চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ হওয়ার পর এনডিএ সরকার চাইছে তা দেশব্যাপী ছড়িয়ে দিতে। অসমের তালিকায় রয়েছে তিন কোটি মানুষের নাম। যারা বৈধ নাগরিক বলে চিহ্নিত হয়েছেন। পাশাপাশি ১৯ লক্ষ মানুষ বাদ পরেছে এই তালিকা থেকে। দেশের ঐক্য ও সুরক্ষার দিকটিকে তুলে ধরে মোদী সরকারের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে বিজেপি সমর্থনকারী দলগুলি। সেই ভিত্তিতেই এখনও পর্যন্ত উঠে এসেছে দিল্লি, মুম্বই ও তেলেঙ্গানার নাম। এই রাজ্যগুলিতে বিজেপি নেতৃত্ব চাইছে এনআরসির ভিত আরও শক্ত করার জন্য।

শনিবার সকাল থেকেই সব এনআরসি নিয়ে সরগরম দেশ, রাজ্য ও রাজনৈতিক মহল। মহারাষ্ট্রের বর্ষীয়ান দল শিবসেনা আগে বিজেপির পরিপন্থী হলেও, এখন তাঁরা বন্ধু। উদ্ধভ ঠাকরে সমর্থিত শিবসেনা এনআরসি সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানিয়ে তা মুম্বইতেও কার্যকরী করার কথা জানিয়েছেন। অসমের নাগরিকপঞ্জি নিয়ে খুশি হয়ে তিনি জানিয়েছেন, মুম্বইতে এনআরসি জরুরি এখান থেকে অবৈধ উদবাস্তুদের সরিয়ে দেওয়ার জন্য।

এই উদ্দেশ্যে তিনি বলেছেন, শিবসেনাই প্রথম যে বাংলাদেশের অবৈধ উদবাস্তুদের ভারতে অবস্থান নিয়ে মুখ খুলেছিল। মোদী সরকারকে সমর্থন জানিয়ে তিনি মুম্বই সহ দেশের বাকি জায়গায় এই একই পদ্ধতি প্রয়োগ করতে বলেছেন। দেশের ঐক্য ও অভ্যন্তরীন সুরক্ষার দিকটিকে আরও শক্তিশালী করে তুলবে।

অন্যদিকে দিল্লির বিজেপি প্রধান মনোজ তিওয়ারি জানিয়েছেন, “দিল্লির অবস্থা ক্রমশ খারাপ হচ্ছে। অবৈধ উদবাস্তু যারা ভারতে থাকছেন তাঁরা ভয়ঙ্কর। আমরাও এনআরসি প্রনয়ন করার কথা ভাবছি।” তিওয়ারি আগে বলেছিলেন দিল্লিতে রোহিঙ্গাদের সংখ্যা বেড়ে যাচ্ছে যাদের ভুয়ো আধার ও রেশন কার্ড করে নিয়েছেন।

কৈলাস বিজয়বর্গীয় এর আগে পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি করার কথা বলেছিলেন। এছাড়াও সীমান্ত লাগোয়া সব জায়গায় এর প্রয়োজন জরুরি বলেও জানিয়েছিলেন তিনি। একই সুরে সুর মিলিয়ে পশ্চিমবঙ্গের বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন বিজেপি রাজ্যে ক্ষমতায় এলে রাজ্যে এনআরসি হবে।

এর পাশাপাশি তেলেঙ্গানার বিজেপি বিধায়ক রাজা সিং-ও একই দাবি জানিয়েছেন। তাঁর বক্তব্য রাজ্যে রোহিঙ্গা মুসলিমদের সংখ্যা অনেক বেড়ে গেছে যা রাজধানী শহর হায়দ্রাবাদের সুরক্ষায় প্রশ্নচিহ্ন তুলেছে। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, হায়দ্রাবাদ লোকসভা কেন্দ্রের মধ্যে বেশ কিছু জায়গায় প্রায় আট হাজার রোহিঙ্গা মুসলিম থাকেন অবৈধভাবে বসবাস করেন। বিজেপিকে সমর্থন করে এইরকম সকল দলগুলি কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তকে আহ্বান জানিয়েছেন।