মুম্বই: ‘দঙ্গল’ ছবি থেকেই তাঁকে প্রথম চেনে দর্শকেরা। গোলগাল কাশ্মীরি মেয়েতিকে মনে ধরে যায় দর্শকদের। তাঁর অভিনয় জাতীয় পুরস্কার এনে দেয় জাইরাকে। তারপর হাতে আসে আরও ছবি। ‘সিক্রেট সুপারস্টার’ ছবিতে জাইরাই দেখায় কীভাবে স্বপ্নকে আঁকড়ে বাঁচতে হয়। আর সেই জাইরাই আজ অভিনয় ছাড়ার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দিয়েছেন। এ যেন অঙ্কুরেই বিনাশ!

মাঝে গড়িয়েছে পাঁচ বছর। জাইরার মধ্যে অনেকেই সম্ভাবনা দেখেছিলেন। কিন্তু মাঝপথে আচমকা এই সিদ্ধান্তে চমকে গিয়েছেন অনেকে। কেউ কেউ বলছেন, সামাজিক চাপেই জাইরা সিনেমা ছাড়তে বাধ্য হচ্ছেন। কেউ আবার বলছেন, কারণ যাই হোক না কেন জাইরা ওয়াসিমের সিদ্ধান্তকে সম্মান জানানো উচিত।

রবিবার সকালেই সেই বিবৃতি দেওয়ার পর এবার সিনেমা সংক্রান্ত সব ছবি নিজের অ্যাকাউন্ট থেকে ডিলিট করে দিলেন দঙ্গল গার্ল। ট্যুইটার এবং ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে তাঁর সঙ্গে সিনেমা জগতের সম্পর্কিত কোনও ছবি নেই।

এদিন তিনি লিখেছিলেন, ‘বলিউড আমায় খ্যাতি-অর্থ-প্রতিপত্তি-ভালোবাসা সব দিয়েছে। বদলে কেড়ে নিয়েছে আমার বিশ্বাস, আমার ধর্ম, আল্লাহ-র করুণা। বিশ্বাস করুন, এই জীবন আমি চাইনি। তাই এই পরিণতি মন থেকে একেবারেই মেনে নিতে পারছি না। মনের সঙ্গে সারাক্ষণ যুদ্ধ করতে করতে আমি ক্লান্ত। পাঁচ বছরে বুঝলাম, বলিউড আমার জন্য নয়।’

অভিনেত্রী আরও লিখেছেন, ‘বলিউড আমার ধর্ম নিয়ে, আমার বিশ্বাস নিয়ে, আমার আদর্শ নিয়ে, আল্লাহ-র প্রতি আনুগত্য নিয়ে, আমার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে বারবার কৌতূহল প্রকাশ করেছে, গোপনে রক্তাক্ত হয়েছি। তারপরেও নিজের বিরুদ্ধে গিয়ে সবার বিরুদ্ধে লড়াই করেছি। আর প্রতি মুহূর্তে বুঝেছি, আমি এই জীবন নিয়ে খুশি নই।’

ফেসবুকে লেখা এই দীর্ঘ পোস্টে জাইরা আরও জানিয়েছেন, মাত্র পাঁচ বছরেই তিনি যেন বেঁচে থাকার মানে হারিয়ে ফেলেছেন। পাঁচ বছর ধরে নিজের সঙ্গে ছলনা করে এসেছেন। এই মিথ্যে অভিনয় আর বয়ে বেড়াতে পারছেন না তিনি। জাইরার মতে, কোরাণে যে শান্তির কথা বলা হয়েছে তা থেকে তিনি যেন বঞ্চিত।