মুম্বই: ২০২৫ সালের পর পাকিস্তান আবারও ভারতের অংশ হবে৷ এই মন্তব্য করে অখণ্ড ভারতের স্বপ্ন দেখালেন আরএসএস নেতা ইন্দ্রেশ কুমার৷ লোকসভা ভোটের মুখ আরএসএস নেতার মন্তব্য রাজনৈতিক পারা বাড়িয়ে তুলেছে৷

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসে খবর, মুম্বইয়ের একটি অনুষ্ঠানে ভাষণ দেওয়ার সময় এই মন্তব্য করেন আরএসএস নেতা৷ কাশ্মীর নিয়ে বলতে গিয়ে তিনি জোর গলায় বলেন, ‘‘আমার কথা মিলিয়ে নেবেন আজ থেকে পাঁচ-সাত বছর পর করাচি, লাহোর, রাওয়ালপিন্ডি, শিয়ালকোটে বাড়ি কেনা যাবে৷ ব্যবসা করার সুযোগ মিলবে৷ ১৯৪৭ সালের আগে পাকিস্তান বলে কোনও দেশের অস্তিত্ব ছিল না৷ তখন বলা হত হিন্দোস্তান৷ ২০২৫ সালের পর ফের পাকিস্তান ভারতের অংশ হবে৷’’

এই জনসভায় তিনি জম্মু ও কাশ্মীরের স্পেশাল স্টেটাস নিয়েও প্রশ্ন তোলেন৷ আরএসএসের এক দেশ, এক সংবিধান মতধারার ব্যাখ্যা করে বলেন, ‘‘ এই নীতি যদি সব রাজ্যে কার্যকর হয় তাহলে জম্মু কাশ্মীরের জন্য আলাদা সংবিধান, আলাদা পতাকা ও আলাদা নাগরিকত্ব কেন? সকল ভারতীয়ের কাছে কাশ্মীরি গ্রহণযোগ্য কিন্তু সকল হিন্দুস্তানিকে ওরা আপন করে দেখে না ৷ এটা গণতন্ত্রের প্রতি অবিচার এবং হত্যার সামিল৷’’

বালাকোটের এয়ারস্ট্রাইকের পর সেনার দক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তোলায় সেই সব নেতা ও ব্যক্তিদের বিশ্বাসঘাতক বলে তোপ দাগেন আরএসএস নেতা ইন্দ্রেশ কুমার৷ তাদের বিরুদ্ধে কড়া আইন আনার পক্ষেও সওয়াল করেন৷ জানান, তাহলে নাসিরুদ্দিন, হামিদ আনসারি অথবা সিধুর মতো কেউ আলটপকা মন্তব্য করার আগে ভাববে৷ তিনি বলেন, সেনাবাহিনীর প্রশংসা করতে করতে তাদের কাছে প্রমাণ চাওয়া হয় আর মোদী বিরোধীতা করতে করতে পাকিস্তানের প্রতি প্রেম দেখান৷ এই সব গদ্দারদের জন্য কড়া আইন আনা দরকার৷