কাবুল: একাধারে দেশের প্রথম মহিলা সিনেমা পরিচালক। আবার তারকা অভিনেত্রী। তিনিই আবার পুলিশকর্মী।সবমিলে বর্ণময় জীবন সাবা সাহারের। তাঁকে প্রকাশ্যে গুলি করা হলো। রক্তাক্ত সাবা চিকিৎসাধীন। তাঁর অবস্থা সংকটজনক। জানাচ্ছে আফগান সংবাদ মাধ্যম ও বিবিসি।

অন্যদিকে বালখ প্রদেশে ফের সেনা ছাউনি লক্ষ্য করে হামলা চালিয়েছে জঙ্গিরা। বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। গাড়ি বোমা বিস্ফোরণে মৃত কয়েকজন। বালখে এর আগে বারবার হামলা চালিয়েছে আফগান তালিবান সংগঠন।

তবে রাজধানী কাবুলে কারাাাাবা গুলি করল প্রথম আফগানি মহিলা চলচ্চিত্র পরিচালক সাবা সাহার কে, সে বিষয়ে কিছু জানা যাননি। বিবিসি জানাচ্ছে, মঙ্গলবার কাবুলে তাঁর গাড়ি লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়। জখম হন সাবা সাহার।

বছর ৪৪ এর সাবা আফগানিস্তানের জনপ্রিয় অভিনেত্রী। তিনি সম্প্রতি সিনেমা প্রযোজনা ও পরিচালনায় নেমেছিলেন। নারী অধিকার নিয়ে সোচ্চার ভূমিকা রাখতেন। পাশাপাশি পুলিশ বিভাগে কাজ করছিলেন।

কাবুল পুলিশ জানাচ্ছে, হামলাকারীদের গুলিতে সাবা সাহার, তাঁর দেহরক্ষী ও গাড়ির চালক জখম হয়েছেন। সাবা আক্রান্ত হওয়ার পরেই কাবুল পুলিশ তদন্তে নেমেছে। তবে বিশেষ কিছু জানানো হয়নি।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল জানিয়েছে, সম্প্রতি আফগানিস্তানে মানবাধিকার কর্মীদের ওপর তালিবান হামলার মাত্রা বেড়েছে। সাবা সাহার অত্যন্ত সাহসী মহিলা পুলিশকর্মী। তিনি চাকরির পাশাপাশি নারীমুক্তি নিয়ে প্রকাশ্যে সরব বক্তব্য রাখছিলেন।

এই কারণে তিনি গোঁড়াপন্থীদের টার্গেট হয়েছেন বলেই সন্দেহ। তবে এই হামলায় জঙ্গি সংগঠন জড়িত কিনা সেটা স্পষ্ট নয়। সাবা সারা গুলিবিদ্ধ এই সংবাদে উদ্বেগ জানিয়েছে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংগঠন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।