স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: জীবনে ফিরছে ভাটপাড়া৷ রাজ্যের মানচিত্রে আলাদা করে অশান্তির চালচিত্র তৈরি হয়েছিল উত্তর ২৪ পরগনার ভাটপাড়ায়৷ তবে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়েছিলেন যে কোন মূল্যে ভাটপাড়া এলাকায় ৭২ ঘণ্টার মধ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে হবে। সেই মতই ধীরে হলেও ছন্দে ফিরছে এই এলাকা৷

প্রশাসন মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ মেনে শান্তি প্রতিষ্ঠা করেছে এলাকায়। বারাকপুরের বর্তমান পুলিশ কমিশনার মনোজ বর্মা নিজে ভাটপাড়া এলাকায় ঘুরে ঘুরে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলছেন। এলাকাবাসীর উদ্দেশ্যে ভাটপাড়া থানার পক্ষ থেকে মাইকিং করে ঘোষনা করা হচ্ছে, ভাটপাড়াবাসীরা এখন স্বাভাবিক ভাবে দোকান বাজার করুন, ব্যবসায়ীরা দোকান খুলুন। যারা বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র চলে গিয়েছিলেন, তারা নিজেদের বাড়িতে ফিরে আসুন। প্রশাসন সার্বিক ভাবে এলাকাবাসীর নিরাপত্তা দেবে।

আরও পড়ুন : তৃণমূল কাউন্সিলরের বাড়ি টার্গেট করে বোমাবাজি, ব্যাপক উত্তেজনা এলাকায়

সোমবার বিকেলে ভাটপাড়া এলাকার ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশ কমিশনার মনোজ বর্মা বৈঠক করেন। ভাটপাড়াবাসীদের সকলের জন্য একটি হোয়াটস অ্যাপ নম্বর চালু করে প্রশাসন। ওই নম্বরে যে কোন ব্যাক্তি যে কোন তথ্য বা ছবি পাঠাতে পারবে, পুলিশ দ্রুত সেই ছবি ও তথ্যের সত্যতা খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা গ্রহন করবে। পুলিশ কমিশনার মনোজ বর্মা জানিয়েছেন, যে বা যারা যে তথ্য কিংবা ছবি ওই নম্বরে পাঠাবে, তার গোপনীয়তা বজায় রেখেই পুলিশ সেই বিষয়ের তদন্ত শুরু করবে।

ভাটপাড়া এলাকায় বারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। দিনে ও রাতে নিয়ম করে চলছে পুলিশি টহল৷ প্রশাসনিক পদক্ষেপে খুশি ভাটপাড়ার বাসিন্দারা৷

আরও পড়ুন : মানসিক ভারসাম্য হারিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় : মুকুল রায়

এদিকে, ভাটপাড়ায় শান্তি ফেরানোর দাবিতে আজ কাঁকিনাড়া স্টেশন থেকে মিছিল করে সিপিএম৷ এই মিছিলে অংশ নেন দলের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র৷ ছিলেন বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসুও৷ একদা জোটসঙ্গীদের এই শান্তির উদ্যোগে সামিল হয় প্রদেশ কংগ্রেসও৷ এদিনের শান্তি মিছিলে হাঁটেন সোমেন মিত্র৷

জানা গিয়েছে, সিপিএম ও কংগ্রেস এক যোগে এদিন ভাটপাড়া থানায় শান্তি ফেরানোর দাবি জানায়৷ মেরুকরণের রাজনীতি ও সন্ত্রাস মোকাবিলায় বিকল্প জোট ছাড়া এগিয়ে যাওয়া মানে বিজেপি ও তৃণমূলকেই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়া৷ মনে করেন সূর্যকান্ত, সোমেন মিত্ররা৷ তাই আসন্ন বিধানসভা ভোটের কথা মাথায় রেখেই ভাটপাড়া থেকেই শুরু হল সিপিএম কংগ্রেস জোটের সলতে পাকানোর কাজ৷ বিধানসভার অন্দরে অবশ্য এই দুই দল সমন্বয়ের মাধ্যমেই কাজ করে থাকে৷