স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ভিনরাজ্যে আটকে থাকা পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরাতে ১০৫টি ট্রেনের ব্যবস্থা করেছে রাজ্য সরকার। রাজ্যের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানালেন কংগ্রেসের লোকসভার দলনেতা তথা বহরমপুরের সাংসদ অধীর চৌধুরী।

অধীর চৌধুরী বলেন, “আমাদের তথা সারা বাংলার পরিযায়ী মানুষদের দাবীকে অবশেষে মান্যতা দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী ১০৫ টি ট্রেনকে বাংলায় ঢোকার অনুমতি দিলেন। তার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাই। কিন্তু এই ফেরানোর ব্যবস্থা অতি দ্রুত করতে হবে, শুধু ১০৫-এ থেমে থাকলে হবে না, আরও বেশি ট্রেন দরকার। ট্রেনের কোনো অভাব নেই, মুখ্যমন্ত্রী যত চাইবেন তত পাবেন, রেলমন্ত্রী আশ্বাস দিয়েছেন আমায়। রেলমন্ত্রী আমায় বলেছেন, বাংলার প্রয়োজন হলে প্রতিদিন ১০০টা করে ট্রেন দেবেন।”

মুখ্যমন্ত্রীকে অধীর চৌধুরীর অনুরোধ, “পরিযায়ীদের গন্তব্যস্থল অনুযায়ী ট্রেনগুলো সাজান, তাদের যতটা সম্ভব ট্রেনে করে নিজের জেলায় পৌঁছে দিন, যাতে বাসের প্রয়োজন কম হয়।” বৃহস্পতিবার দুপুরে টুইট করে ১০৫টি ট্রেনের ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

টুইটে তিনি লেখেন, “দেশের বিভিন্নপ্রান্তে আটকে থাকা মানুষ, যাঁরা বাংলায় ফিরতে চান তাঁদের সাহায্যের অঙ্গীকার মেনে অত্যন্ত খুশি সঙ্গে জানাচ্ছি যে, আমরা ১০৫টি স্পেশ্যাল ট্রেনের বন্দোবস্ত করেছি। আগামী দিনে এই স্পেশাল ট্রেনগুলি বাংলায় ফিরতে চাওয়া মানুষদের নিয়ে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় আসবে।”

উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগেই পরিযায়ী শ্রমিকদের বাংলায় ফেরানো নিয়ে কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাত বেঁধেছিল। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ নিজে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি লিখে শ্রমিকদের ঘরে ফেরা প্রসঙ্গে একাধিক অভিযোগ তুলেছিলেন৷ শ্রমিকদের রাজ্যে ফেরানো নিয়ে সরকারের সদিচ্ছা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন অধীরও। কিন্তু এদিন মুখ্যমন্ত্রীর ১০৫টি স্পেশ্যাল ট্রেনের ঘোষণায় খুশি তিনি।