নয়াদিল্লি:  ভারত সফরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। দুদিনের সফরে ভারতে সস্ত্রীক মার্কিন প্রেসিডেন্ট। তাঁর এই সফর ঘিরে চড়ছে রাজনৈতিক পারদ। ট্রাম্পের ভারত সফর নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে বামেরা। পাশাপাশি রাষ্ট্রপতি ভবনে আয়োজিত ট্রাম্পের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান বয়কট করেছেন অধীর চৌধুরী। ওই অনুষ্ঠানে সোনিয়া গান্ধীকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি, সেই কারণেই বহরমপুরের সাংসদের এই সিদ্ধান্ত। শুধু অনুষ্ঠান বয়কট করাই নয়, ট্রাম্পের সফর নিয়ে তোপও দেগেছেন। তিনি বলেন, “প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারের জন্য ভারতের মাটিকে ব্যবহার করছেন ট্রাম্প ।”

তাঁর মতে, ভারতে ট্রাম্পের সফরে কি প্রাপ্য তা এখনও পরিস্কার নয়। অথচ ট্রাম্পকে খুশি করার জন্য কোটি কোটি টাকা খরচ করছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। একই সঙ্গে অধীর আরও বলেন, “প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারে ভারতের মাটিকে ব্যবহার করছেন ট্রাম্প। আসলে আমেরিকায় অনেক গুজরাতিরা থাকেন। ট্রাম্পের কাছে তাঁদের ভোট গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেন বাংলার রবিনহুড। তিনি বলেন, ‘কংগ্রেস ১৩৪ বছরের রাজনৈতিক দল। বিশ্বের সব গণতান্ত্রিক দেশেই এই দলের নেতারা স্বীকৃত। কিন্তু প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সম্মানে যে নৈশভোজের আয়োজন রাষ্ট্রপতি করেছেন তাতেই আমন্ত্রিত নন সোনিয়া গান্ধী। যা অপমানকর। তাই ওই নৈশভোজ প্রত্যাখ্যান করা ছাড়া আমার কোনও উপায় নেই।’

সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে অধীর চৌধুরী আরও জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী যখন আমেরিকা গিয়েছিলেন সেই সময় হাউডি মোদী-তে সেদেশের প্রধান দুই রাজনৈতিক দল রিপাবলিকান ও ডেমোক্র্যাটদের প্রতিনিধিরা ছিলেন। কিন্তু ট্রাম্পের নৈশভোজে কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী আমন্ত্রণ পাননি।’ মোদীর প্রতি কটাক্ষ ছুড়ে দিয়ে অধীর জানান, ‘আমাদের প্রধানমন্ত্রীর অভিধানে গণতন্ত্রের অর্থ বদলে গিয়েছে। এখন শুধুই মোদী শো। যেন ভারত মানেই মোদী।’

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ