স্টাফ রিপোর্টার, বহরমপুর: নবাবের জেলায় শুধু ভোটর লড়াই নয়৷ এবার লড়াই সম্মান রক্ষার৷ লড়াই শাসক তৃণমূলের বিরুদ্ধে৷ জয় ছিনিয়ে এনে ‘একদা বন্ধু’ বামেদের বার্তা দেওয়ার চ্যালেঞ্জ বহরমপুরের ‘রবিনহুড’ অধীর চৌধুরীর৷ ইভিএমে যুদ্ধের জন্য সোমবারই জেলাশাসকের কাছে মনোনয়ন জমা দিলের বহরমপুরের কংগ্রেস প্রার্থী অধীর চৌধুরী৷

আরও পড়ুন: মাওবাদীদের দমন করে জঙ্গলমহলকে মডেল করে তুলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়: অভিষেক

প্রতিপক্ষ তৃণমূল প্রার্থী ও একদা ঘনিষ্ট বলে পরিচিত অপূর্ব সরকারের মনোনয়ন পেশের পালা শেষ৷ কৌতুহল কব অধীর কবে মনোনয়ন জমা দেবেন৷ আজ অবশ্য তা মিটল৷ এদিন মনোনয়ন পেশের আগে শহরে বিরাট ব়্যালি করে নিজেদের শক্তি প্রদর্শন করে হাত শিবির৷ ছিলেন বহরমপুরের বিধায়ক মনোজ চক্রবর্তী, বিধায়ক ফিরোজা বেগম সহ জেলা কংগ্রেস নেতৃত্ব।

বিগত বেশ কয়েকবার ধরেই বহরমপুর অধীর চৌধুরীর দখলে৷ ২০১৪ সালে রাজ্যে প্রবল তৃণমূল হাওয়াতেই এই কেন্দ্রে প্রায় ২লক্ষ ২৬ হাজারের বেশি ব্যবধানে জয় পান প্রাক্তন প্রদেশ সভাপতি৷ এবার সেই ব্যবধান কী বাড়বে? রাজনৈতিক মহলের অনেকেই মনে করছেন, লড়াই এবার কঠীন৷ মুর্শিদাবাদ জেলায় বেড়েছে তৃণমূলের সাংগঠনিক শক্তি৷ কলেবরে বাড়বাড়ন্ত গেরুয়া শিবিরেরও৷ প্রার্থী দিয়ে দিয়েছে বামেরাও৷

আরও পড়ুন: নিরাপত্তার দাবিতে স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে স্মারকলিপি দেবেন ভোটকর্মীরা

রাজ্যের শাসক দলের জেলা পর্যবেক্ষক শুভেন্দু অধিকারী আগেই ওই জেলা দখলের ডাক দিয়ে রেখেছেন৷ বহু কংগ্রেস কর্মী আজ জোড়াফুল শিবিরে৷ এই পরিস্থিতিতে অধীরের লড়াই জিতে বহুকিছুর জবাব দেওয়ার৷ আগামী ২৯শে এপ্রিল বহরমপুর লোকসভা আসনে ভোট৷