ফাইল ছবি৷

কলকাতা: দেড়বছর আগে শুরু হওয়া নির্মীয়মাণ ব্রিজ ভেঙে পড়েছে মালদহের বৈষ্ণবনগরে। মর্মান্তিক এই ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন দুই শ্রমিক সহ একজন ইঞ্জিনিয়র, এখনও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিনজন। জাতীয়সড়ক কর্তৃপক্ষ বলছে এই ঘটনায় কোনও প্রযুক্তিগত ত্রুটি ছিল না, নিছকই দুর্ঘটনা। এই প্রসঙ্গ উল্লেখ করে রীতিমত কটাক্ষ করেছেন কংগ্রেস নেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরী।

এদিন তিনি স্পষ্ট জানিয়েছেন, জাতীয়সড়ক কর্তৃপক্ষ দায়িত্ব এড়িয়ে যেতেই এমন মন্তব্য করছে, কারণ তাঁরা উদাসিন। গাফিলতি নিশ্চয় আছে, না হলে কাজ করতে এসে শ্রমিকদের মরতে হল কেন, প্রশ্ন তুলেছেন কংগ্রেস নেতা।

রবিবারের ঘটানায় রীতিমত ক্ষোভপ্রকাশ করে তিনি উচ্চপর্যায়ের তদন্তের দাবি জানিয়েছেন। এছাড়াও যাদের মৃত্যু হয়েছে তাঁদের পর্যাপ্ত ক্ষতিপূরণ দেওয়ার আর্জিও জানিয়েছেন।

তিনি আরও জানান, দীর্ঘদিন থেকেই ফরাক্কা ব্যারেজের উপর চাপ কমাতে একতি ব্রিজ তৈরির কথা হইয়েছিল। বিগত দেড় বছর থেকে সেই কাজ চলছিল সেখানে, তবে এইরকম ঘটনা কেন ঘটল তা খতিয়ে দেখার প্রয়োজন আছে।

মুর্শিদাবাদের কংগ্রেস নেতা ফরাক্কা ব্রিজ ভাঙার ঘটনায় কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহণ মন্ত্রী নিতিন গডকড়ির সঙ্গে কথা বলবেন বলেও আশ্বাস দিয়েছেন।

তবে তিনি স্পষ্ট বলেছেন এই ঘটনার যথাযথ তদন্ত না হলে এই ইস্যুতে কেন্দ্রকে ছেড়ে কথা বলা হবে না, কারণ এই প্রজেক্টটি কেন্দ্র’র।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ