স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: বিপুল আর্থিক ক্ষতির জন্য পঞ্চমবারের জন্য শিল্প সম্মেলন করার সাহস দেখাচ্ছেন না মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। চাঞ্চল্যকর এই মন্তব্য লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা অধীর চৌধুরীর। সংবাদমাধ্যমের উদ্দেশ্যে তিনি বললেন, খোঁজ নিয়ে দেখুন, “মুখ্যমন্ত্রীএবার শিল্প সম্মেলন করবেন না।”

গত চারবছর ধরে রাজ্যে বাণিজ্য সম্মেলনের আয়োজন করছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। চলতি বছরের ১৬ ও ১৭ জানুয়ারি, এই দুদিন বেঙ্গল গ্লোবাল বিজনেস সামিটে ছিলেন লক্ষ্মী মিত্তল, মুকেশ অম্বানী, সজ্জন জিন্দলের মতো প্রথম সারির শিল্পপতিরা। তার আগের বছরগুলোতেও শিল্পপতিরা ছাড়া অরুণ জেটলি, নীতিন গড়কড়ি, পীষূষ গোয়েলের মতো কেন্দ্রের প্রভাবশালী মন্ত্রীরা শিল্প সম্মেলনে অংশ নিয়ে মমতার প্রশাসনের ভূয়সী প্রশংসা করে গিয়েছেন।

চতুর্থ বিশ্ববঙ্গ শিল্প সম্মেলনে ২ লক্ষ ১৯ হাজার ৯২৫ কোটি টাকার লগ্নি প্রস্তাব এসেছে বলে সম্মেলন মঞ্চ থেকে ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি জানিয়েছিলেন, গত তিন বছরে যে প্রস্তাব এসেছিল, তার ৫০% বিনিয়োগ প্রক্রিয়ার মধ্যে রয়েছে। অন্য দিকে, কেন্দ্রীয় বাণিজ্য মন্ত্রকের হিসেব অনুযায়ী রাজ্যে গত তিন বছরে (২০১৫ থেকে ২০১৭-এর নভেম্বর পর্যন্ত) লিখিত লগ্নি প্রস্তাব জমা পড়েছে ২৬ হাজার ৬৩০ কোটি। বিনিয়োগ বাস্তবায়িত হয়েছে ৬৯৫২ কোটি টাকা। অর্থাৎ লিখিত প্রস্তাবের ২৬.১০% লগ্নি বাস্তবায়িত হয়েছে।

দেখা গিয়েছে, বাণিজ্য সম্মেলনের ঘোষণার তুলনায় বাস্তবে লগ্নির পরিমাণ আরও নগণ্য। যা নিয়ে মমতা বন্দোপাধ্যায়কে একাধিকবার তোপ দেগেছে বিরোধীরা। তাদের বক্তব্য, হাজার হাজার কোটি কাটা খরচ করে শিল্প সম্মেলন করে আখেরে কোনও লাভই হচ্ছে না। লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা সে কথা আরও একবার মনে করিয়ে দিয়েছেন।

তবে ২০২০ সালে রাজ্যে শিল্প সম্মেলন না হওয়ার ব্যাপারে এখনও পর্যন্ত আনুষ্ঠানিকভাবে সরকার কিছু জানায়নি।