কলকাতা: নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন ও এনআরসি নিয়ে আন্দোলনের মাঝেই মোদী-মমতা বৈঠক৷ ওই বৈঠকের পরই মমতাকে তীব্র কটাক্ষ করেছিলেন কংগ্রেস সাংসদ অধীর চৌধুরীর৷ এবার সিবিআইয়ের তদন্তকারী অফিসারদের রদবদল নিয়ে প্রশ্ন তুললেন তিনি৷

অধীর চৌধুরীর অভিযোগ,রাজভবনে আলোচনার পর সিবিআই অফিসার পাল্টে গেল৷ মমতাকে বাঁচাতেই সিবিআইয়ে রদবদল৷ তাঁর কথায়, মিউচুয়াল অ্যাডজাস্টমেন্ট হয়ে গিয়েছে৷ চিটফান্ডকাণ্ডে সিবিআই তদন্ত এখন অথৈ জলে৷ সম্প্রতি কলকাতা রাজভবনে মোদী-মমতা বৈঠক হয়৷ তারপরই কংগ্রেস সাংসদ অধীর চৌধুরী কটাক্ষ করে মমতার উদ্দেশ্যে বলেছিলেন,আসলে মোদিকে দরকার মমতার৷

সিবিআই সূত্রে খবর, সারদা মামলার আইও তথাগত বর্ধন এবং নারদ মামলার আইও রঞ্জিৎ কুমারকে বদলি করা হয়েছে দিল্লিতে৷ এছাড়া রোজভ্যালি মামলার ২ আইওকে বদলি করা হয়েছে ভুবনেশ্বরে৷ এরা হলেন,ব্রতীন ঘোষাল ও সোজম শেরপা৷ কলকাতা থেকে যে সব তদন্তকারী অফিসারদের ভিন রাজ্যে বদলি করা হয়েছে,তারা দীর্ঘদিন ধরে সারদা, নারদা ও রোজভ্যালি মামলার তদন্ত করে আসছিলেন৷

এদিকে বদলির নির্দেশ পাওয়ার পরই তাকে কার্যত চ্যালেঞ্জ জানিয়েছেন এক সিবিআই আধিকারিক৷ নারদ তদন্তের তদন্তকারী আধিকারিক রঞ্জিৎ কুমারকে কলকাতা থেকে বদলি করা হয়েছে৷ এরপরই তিনি ই-মেল করেন সিবিআই অধিকর্তা ঋষিকুমার শুক্লকে৷ যদিও সিবিআই সূত্রে খবর, এটা রুটিন বদলি৷

বদলির নির্দেশকে কার্যত চ্যালেঞ্জ জানিয়ে পাল্টা সিবিআই অধিকর্তাকেই চিঠি দিলেন নারদ তদন্তের তদন্তকারী এক আধিকারিক৷ ওই আধিকারিক ঘনিষ্ঠ মহলে জানিয়েছেন, ‘স্টেশন’ পরিবর্তন অর্থাৎ কলকাতা থেকে দিল্লি বা অন্য কোনও শহরে বদলি করার ক্ষেত্রে সাধারণ ভাবে ১০ বছর ঊর্ধ্বসীমা ধরা হয়৷

অর্থাৎ ১০ বছরের বেশি কোনও আধিকারিক কোনও শহরে কর্মরত থাকলে তাঁকে কর্তৃপক্ষ অন্য শহরে পাঠাতেই পারেন, বদলি করে৷ কিন্তু সিবিআই আধিকারিক রঞ্জিৎ কুমার কলকাতায় ৮ বছর ধরে কর্মরত রয়েছেন৷

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।