নয়াদিল্লি: বছর তিনেক আগে তৃণমূলকে ঠেকাতে জোট করেছিল বাম-কংগ্রেস। যদিও সেই জোট সাফল্য পায়নি। এবার বিজেপিকে ঠেকাতে বাম-কংগ্রেসের সঙ্গে জোট করতে চাইছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর এই প্রস্তাব নিয়ে মুখ খুলেছেন লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা তথা বহরমপুরের সাংসদ অধীর রঞ্জন চৌধুরী। জোটের প্রস্তাব নিয়ে তৃণমূল নেত্রীকে কটাক্ষ করেছেন তিনি। বৃহস্পতিবার সংসদে প্রবেশের সময়ে প্রাক্তন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি বলেছেন, “কোনও প্রতিশ্রুতি দিয়ে এবং সেখান থেকে সরে যাওয়া তাঁর(মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের) স্বভাব।”

আরও পড়ুন- বিজেপিকে রুখতে ‘চিরশত্রু’ সিপিএম ও কংগ্রেসকে কাছে টানার বার্তা মমতার

লোকসভা ভোটে বিপর্যয়৷ জোড়াফুল ছেড়ে বিধায়ক, কাউন্সিলর, পঞ্চায়েত সদস্যরা এখন পদ্মমুখী৷ ঠেলার নাম বিজেপি৷ বুঝছেন তৃণমূল সুপ্রিমো৷ এই পরিস্থিতিতে ‘চির শত্রু’ বাম ও প্রাক্তন জোটসঙ্গী কংগ্রেসকে কাছে টানার বার্তা দিলেন দিলেন মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

বুধবার বিধানসভা অধিবেশনে হাজির ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী৷ সেখানেই তিনি বিরোধী বাম ও কংগ্রেস বিধায়কদের যৌথভাবে লড়ার আহ্বান জানান৷ তিনি বলেন ‘‘সিপিএম-কংগ্রেস দেশটাকে ভাঙবে না। আমার ভয় হচ্ছে, ওরা (বিজেপি) সংবিধান না বদলে দেয়। আমাদের যৌথভাবে আসা দরকার৷’’

বাংলায় বিজেপির উত্থানের জন্য তৃণমূল এবং নেত্রী মমতাকেই দায়ী করেছেন অধীর রঞ্জন চৌধুরী। তিনি বলেছেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশাসনিক ব্যর্থতার কারণেই বাংলায় বিজেপির মতো সাম্প্রদায়িক শক্তির উত্থান হয়েছে। যে উপায়ে বাংলায় বিজেপি এগিয়েছে তার জন্য সম্পূর্ণভাবে তৃণমূল নেত্রী দায়ী।”

আরও পড়ুন- মমতাই স্পষ্ট করলেন তৃণমূল ‘ক্ষয়িষ্ণু শক্তি’, দাবি মুকুলের

মমতার জোট বার্তা বিধানসভাতেই খারিজ করে দেন কংগ্রেস নেতা আব্দুল মান্নান। তবে সেই পথে হাঁটেননি অধীর চৌধুরী। এই বিষয়ে বৃহস্পতিবার অধীরবাবু বলেছেন, “জোটের বিষয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিশেষ আগ্রহী থাকলে তিনি আমাদের শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে কথা বলতেই পারেন।” প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র তৃণমূল নেত্রীর জোট বার্তার প্রসঙ্গে বলেছেন, ‘‘তিনি কখনও বলছেন কংগ্রেসকে সাইনবোর্ড করে দেবেন। আবার কখনও বলছেন, কংগ্রেস দেশটাকে ভাঙবে না। কোনটা সত্যি আগে সেটা ঠিক করুন৷’’

রাজ্য রাজনীতিতে অধীর-মমতার বিরোধের কথা নতুন কিছু নয়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কংগ্রেসে থাকার সময় থেকেই চলছে সেই বিরোধ। ২০১১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের সঙ্গে তৃণমূলের জোট হলেও অধীর-মমতার বিরোধ ছিল স্পষ্ট।