নয়াদিল্লি: আধারে ঠিকানা বদল করার প্রয়োজন পড়ে অনেক সময়েই। ঠিকানা বদল হওয়ার পর নতুন ঠিকানায় গিয়ে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলার সময় সমস্যায় পড়তে হতে পারে। কারণ, নতুন জায়গায় ব্যাংক অ্যাকাউন্ট যে ঠিকানায় খুলবেন তার সঙ্গে আধার লিংক করতে গেলেই দেখা যায় আধারে অন্য ঠিকানা। এই সমস্যা যাতে দ্রুত সমাধান করা যায়, তারই ব্যবস্থা করেছে কেন্দ্র।

বুধবার এই সংক্রান্ত একটি নির্দেশিকা দেওয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে যদি কেউ আধারে থাকা ঠিকানার বদলে অন্য ঠিকানা ব্যবহার করতে চায়, তাহলে সেল্ফ ডিক্লেরেশন দিলেই হবে। র্দীঘদিন ধরেই এই দাবি ছিল। অবশেষে তা বাস্তবায়িত করেছে কেন্দ্রীয় সরকার।

অর্থাৎ, আধারে যদি বাড়ির ঠিকানা থাকে তাহলেও বর্তমান ঠিকানা হিসেবে কর্মস্থলের ঠিকানা দেওয়া যাবে।

কোনও ব্যক্তি বাড়ি ভাড়া নিলেও সেক্ষেত্রে সেই বাড়ির ঠিকানা নথিভুক্ত করতে হবে আধারে। তবে অনলাইন বা অফলাইন দুটি ক্ষেত্রেই মাথায় রাখতে হবে কিছু বিষয়-

কোনও ব্যক্তি বাড়ি ভাড়ায় থাকলে সেই ভাড়ার এগ্রিমেন্ট যেন বৈধ হয়। বৈধ এগ্রিমেন্ট ছাড়া বাড়ি ভাড়া সংক্রান্ত কোনও নথিই গ্রাহ্য হবে না। বাড়ি ভাড়ার এগ্রিমেন্ট যার আধার তাঁর নামেই হতে হবে। স্ত্রী, বাবা মা বা অন্য কোনও আত্মীয়ের নামে হলে তা গ্রাহ্য হবে না।

যদি ইউআইডিআইয়ের সেলফ সার্ভিস পোর্টালে গিয়ে কেউ ঠিকানা নথিভুক্ত করতে চায় সেক্ষেত্রে বাড়ি ভাড়া সংক্রান্ত এগ্রিমেন্টের নথি স্ক্যান করে পিডিএফ আকারে তা পাঠাতে হবে। একটি পিডিএফ ফাইলেই সমস্ত নথি রাখতে হবে। একাধিক পিডিএফ ফাইল আধার কর্তৃপক্ষ বাতিলও করে দিতে পারে।

এই তো গেল অনলাইনের পর্ব। এবারে কেউ যদি নিকটবর্তী আধার সেবা কেন্দ্রে গিয়ে এই ঠিকানা পরিবর্তন করতে চায় সেক্ষেত্রে কি হবে?

এই বিষয়ে আধার কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে বাড়ি ভাড়া সংক্রান্ত আসল এগ্রিমেন্ট নিয়ে হাজির হতে হবে নিকটবর্তী আধার সেবা কেন্দ্রে। সেই কেন্দ্রের আধিকারিকরা আসল এগ্রিমেন্টের নথি স্ক্যান করে সেখানেই ফেরত দিয়ে দেবে। কোনও ফটোকপি বা নথির জেরক্স গৃহীত হবে না।

ঠিকানার বৈধতার ক্ষেত্রে মোট ৪৪টি নথিকে বৈধ বলে ঘোষণা করেছে আধার কর্তৃপক্ষ। ভোটার কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স, ইলেক্ট্রিসিটি বিল সহ বৈধতা পেয়েছে বাড়ি ভাড়ার এগ্রিমেন্টও।