তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: করোনাভাইরাসের আতঙ্কে কাঁপছে গোটা বিশ্ব। মারণ এই ভাইরাসের ভয়ঙ্কর প্রভাব পড়েছে ভারতেও। এরাজ্যেও ইতিমধ্যেই আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় দুশেরা কাছাকাছি। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাই করোনা মোকাবিলার একমাত্র পথ, এমনই বলছেন বিশেষজ্ঞরা।

এই পরিস্থিতিতে রাজ্যের সংশোধনাগারগুলির পরিকাঠামোগত অবস্থা খতিয়ে দেখার কাজ শুরু হয়েছে। বাঁকুড়া কেন্দ্রীয় সংশোধনাগার ঘুরে দেখে গেলেন এডিজি (কারা) পীযূষ পাণ্ডে।

দফতরের অন্য কর্তাদের সঙ্গে নিয়ে বাঁকুড়া কেন্দ্রীয় সংশোধনাগার ঘুরে দেখার পাশাপাশি আবাসিকদের সুবিধা অসুবিধার বিষয়ে খোঁজ নেন এডিজি কারা। আপাতত জেলবন্দিদের তাঁদের আত্মীয়-পরিজনেদের সঙ্গে দেখা করতে দেওয়া হচ্ছে না। আবাসিকদের কারও শরীরে যাতে বাইরে থেকে সংক্রমণ ছড়িয়ে না পড়ে তা নিশ্চিত করতেই এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

করোনার সংক্রমণ রুখতে বাজার থেকে আসা খাদ্যসামগ্রী-সহ অন্যান্য জিনিসপত্র স্যানিটাইজ করার পরই সংশোধনাগারের ভিতরে ঢোকার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে। দমকল বাহিনী দিয়ে নিয়মিত সংশোধনাগার জীবাণুমুক্ত করার কাজ শুরু হবে বলে জানা গিয়েছে।

পরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, “আমি নতুন নিয়োগ হয়েছি। তাই পরিদর্শনে আসার কথা ছিল। আর যেহেতু করোনা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, সেকারণেই পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে এখানে এসেছি।”

সাংবাদিকদের এডিজি কারা জানান, করোনা রুখতে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা সংশোধনাগারেও নেওয়া হয়েছে। আবাসিকদের প্রত্যেককে মাস্ক পরা, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ও নিয়মিত হাত ধোওয়ারও নির্দেশ জারি করা হয়েছে।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV