নয়াদিল্লিঃ জনপ্রিয় সুরকার ও গায়ক লাকি আলির মৃত্যু সংবাদে ভরে গিয়েছে সোশ্যাল সাইট। তবে এই বিষয়ের সত্যতা তুলে ধরলেন সঙ্গীত শিল্পীর কাছের বন্ধু বর্ষীয়ান অভিনেত্রী নাফিসা আলি। লাকি আলির মৃত্যু সংবাদ সম্পূর্ন ভুয়ো দাবি করলেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি জানালেন, ‘সুস্থ আছেন লাকি আলি। নিজের পরিবারের সঙ্গে ব্যাঙ্গালরের বাগান বাড়িতে সময় কাটাচ্ছেন তিনি’।

সোশ্যাল মিডিয়া এমন একটি মাধ্যম যার দ্বারা কয়েক নিমেষেই যেকোন সংবাদ সারা বিশ্বের দরবারে পৌঁছে দেওয়া যায়। আর তার ফলেই সঠিক এবং সত্য সংবাদের পাশাপাশি নানা মিথ্যা ও ভুয়ো সংবাদ গুলিও মিনিটের মধ্যেই ছড়িয়ে পরে চারিদিকে। এমনই এক ভুয়ো সংবাদের নমুনা বিখ্যাত সঙ্গীতশিল্পী লাকি আলির মৃত্যু সংবাদ। হঠাৎই মঙ্গলবার সন্ধ্যে থেকে সোশ্যাল সাইটে গুঞ্জন ওঠে লাকি আলির মৃত্যু সংবাদের। বলা হয়, কোভিডে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে লাকি আলির।

একাধিক শোকবার্তা ভেসে এসেছে নেটিজেনদের থেকে। তবে এই সংবাদের সত্যতা খতিয়ে দেখেননি কোন নেটিজেনই। অবশেষে এই বিষয়ের সত্যতা তুলে ধরেছেন অভিনেত্রী নাফিসা আলি। গায়কের ভীষণ কাছের বন্ধু নাফিসা। তিনি নেটিজেনদের আশ্বস্ত করলেন। নাফিসা স্পষ্ট জানিয়েছেন, ‘লাকি আলি সঙ্গে আজ দুই থেকে তিনবার কথা হয়েছে আমার। তিনি একেবারেই সুস্থ আছেন। কোভিডে আক্রান্তও হননি তিনি। নিজের পরিবারের সঙ্গে ব্যাঙ্গালরের বাগান বাড়িতে আছেন। তার পরিবারের প্রত্যেকেও ভাল আছেন। এমনকি আগামীদিনে সঙ্গীত অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা করছেন তিনি। সেই নিয়েই ব্যস্ত রয়েছেন লাকি’।

নব্বই দশকের এই জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী বেশ কিছু বছর লাইমলাইট থেকে দূরে ছিলেন। তবে তার শ্রোতারা আজও তার গানে মাতোয়ারা। গত বছর গোয়ার একটি সঙ্গীত অনুষ্ঠানে গান গেয়েছেন তিনি। শুধু গিটার হাতেই ‘ও সানাম’ গান গেয়ে মন ভরিয়েছেন উপস্থিত শ্রোতাদের। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিল সেই অনুষ্ঠানের ভিডিও।

এই করোনা আবহে সোশ্যাল মিডিয়ার দ্বারা অসংখ্য মানুষ সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। তাদের সাহায্যে উপকৃত হয়েছেন হাজার হাজার মানুষ। এই সবের মাঝেও কিছু ভুয়ো সংবাদ ছড়াচ্ছে নেটমাধ্যমে। কিছুদিন আগে বাংলা সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী শুভশ্রী গাঙ্গুলির করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার খবরও ভাইরাল হয়েছিল সোশ্যাল সাইটে। তারপর অভিনেত্রী নিজেই সত্যতা তুলে ধরে তার অনুরাগীদের জানিয়েছিলেন, তিনি বাড়িতেই আইসলেশনে রয়েছেন’।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.