মুম্বই: সুশান্ত সিং রাজপুতের অকাল মৃত্যু মানুষকে স্তম্ভিত করে দিয়েছে। রবিবার তাঁর ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয় ঝুলন্ত দেহ। মাত্র ৩৪ বছর বয়স হয়েছিল তাঁর। জানা যাচ্ছে বহুদিন ধরে অবসাদে ভুগছিলেন তিনি। কিন্তু এই অবসাদ থেকে বেরিয়ে আসার চেষ্টা করেছিলেন।

ঠিক এক মাস আগের একটি পোস্ট দেখে বোঝা যায় অবসাদের সঙ্গে তিনি লড়াই করছিলেন। চেষ্টা করছিলেন যাতে সুস্থ জীবনযাপন করা যায়। ৫ মে ইনস্টাগ্রামে একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন সুশান্ত। ছবির ক্যাপশনে লিখেছিলেন ঠিক কী কী করলে সুস্থ জীবনযাপন করা যায়।

তিনি লিখেছিলেন, “শেষ কয়েক মাসে আমি কয়েকটি জিনিস চেষ্টা করেছি।” তিনি বলেছিলেন এই কাজগুলি তে সময় ইনভেস্ট করলে পরিবর্তে ভালো থাকা যায়। এই কাজ গুলির মধ্যে ছিল, প্রত্যেকদিন ৭ ঘন্টা টানা ঘুম, নিয়মিত মেডিটেশন করা, একটি জার্নাল লেখা, নিয়মিত শরীর চর্চা করা, কিছুটা সময় ডিজিটাল দুনিয়ায় দেওয়া, মাঝেমধ্যে উপবাস করা।

তিনি মনে করেছিলেন জীবনের গুণমান বাড়ানো যায় এই কাজগুলি করে। এর থেকেই বোঝা যায় তিনি জীবনকে সুস্থ ভাবে উপভোগ করতে চেয়েছিলেন একটা সময়। কিন্তু ঠিক একমাস পরই সমস্ত টা পাল্টে গেল। কাউকে কিছু বুঝতে না দিয়ে চলে গেলেন বলিউডের এই অন্যতম অভিনেতা।

টেলিভিশন থেকে কেরিয়ার শুরু করেছিলেন। নৃত্যশিল্পী হিসেবেও মন জয় করেছিলেন অনুরাগীদের। গুণ ও কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে বলিউডের ছবিতে কাজ করতেও তাই কোন গডফাদারের প্রয়োজন হয়নি। একের পর এক ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে মুগ্ধ করেছিলেন তিনি। সাফল্যের পরেও কেন এত অবসাদ ছিল তা নিয়ে অনুরাগীদের মনে প্রশ্ন থেকেই গিয়েছে।

সপ্তম পর্বের দশভূজা লুভা নাহিদ চৌধুরী।