মুম্বই: অকালে চলে গেলেন অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত। রবিবার তাঁর বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় ঝুলন্ত দেহ। বয়স হয়েছিল মাত্র ৩৪ বছর। ঘরের থেকে কোনও সুইসাইড নোট পাওয়া যায়নি। পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে জানা যাচ্ছে বহুদিন ধরে অবসাদে ভুগছিলেন সুশান্ত।

সাফল্যের শিখরে গিয়েও কী ভাবে কেউ আত্মহত্যার পথ বেছে নিতে পারে এই নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। আর যেখানে সুশান্তের জীবনে ছিল অনেক স্বপ্ন। ২০১৯ এর সেপ্টেম্বর মাসে ৫০টি স্বপ্নের কথা পোস্ট করেছিলেন সুশান্ত। হাতে লেখা সেই পোস্টে ছিল সুশান্তের জীবনের নানা রকম স্বপ্ন। কিন্তু সেগুলো অপূরণীয় রেখেই চলে গেলেন অভিনেতা।

সুশান্ত স্বপ্ন দেখেছিলেন একদিন তিনি একটি বিমান চালানো শিখবেন। এছাড়াও তাঁর স্বপ্নে ছিল বা হাতে ক্রিকেট খেলা। ভেবেছিলেন ট্রেনে করে গোটা ইউরোপ ঘুরে বেড়াবেন। ইসরো বা নাসাতে ১০০ জন বাচ্চাকে ওয়ার্কশপ করাতে পাঠাবেন বলেও ভেবেছিলেন সুশান্ত।

এছাড়া নিজের বই লেখার পরিকল্পনা ছিল তাঁর। কিন্তু সবই অসম্পূর্ণ থেকে গেল। মহিলারা যাতে সেল্ফ ডিফেন্স শেখেন যোগব্যায়াম শেখেন সেই ব্যাপারেও কাজ করেছিলেন সুশান্ত। বাচ্চাদের নাচ শেখানো, একজন চ্যাম্পিয়ন এর সঙ্গে দাবা খেলা এবং একটি ল্যাম্বরগিনি গাড়ি কেনার স্বপ্ন দেখেছিলেন সুশান্ত সিং রাজপুত।

সুশান্ত এর এক ঘনিষ্ঠ সূত্রের কথায়, “ও জীবন নিয়ে খুব পজিটিভ ছিল। গিটার শিখতে চাইছে চাইতো সুশান্ত। জ্যোতির্বিদ্যা, ভলক্যানো ফটোগ্রাফি নিয়ে খুব আগ্রহ ছিল তাঁর। ওঁর হাতের লেখা ও চমৎকার ছিল।” সুশান্ত সিং রাজপুতের টিমের পক্ষ থেকে একটি বার্তা প্রকাশ করা হয়েছে।

সেখানে বলা হয়েছে, “সত্যি বলতে যন্ত্রণা হচ্ছে যে সুশান্ত সিং রাজপুত আর আমাদের মধ্যে নেই। ওঁর অনুরাগীদের কাছে অনুরোধ রইল প্রার্থনা করার এবং ওর জীবন ছবি এবং যা যা কাজ তিনি করেছেন সেগুলিকে মনে রাখার। এই শোকস্তব্ধ মুহূর্তে আমরা যাতে প্রাইভেসি বজায় রাখতে পারি তার অনুরোধ করবো সংবাদমাধ্যমের কাছে।”

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ