মুম্বই- সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ তাঁর অনুরাগীরা। এবার তাঁর সম্পর্কে মুখ খুললেন অভিনেতা সইফ আলি খান। সইফ কন্যা সারা আলি খান তার কেরিয়ার শুরু করেছেন কেদারনাথ ছবির মাধ্যমে। প্রথম ছবিতেই তাঁর নায়ক ছিলেন সুশান্ত সিং রাজপুত। সুশান্তের শেষ ছবি দিল বেচারা তে একটি ক্যামিও রোলে অভিনয় করেছেন সইফ আলি খান।

সুশান্ত সম্পর্কে সইফ এক সংবাদমাধ্যমের কাছে বলছেন, সুশান্ত সত্যিই একজন গুণী এবং খুব সুন্দর দেখতে অভিনেতা ছিলেন। এমনকি সইফ জানিয়েছেন, তিনি মনে করেছিলেন সুশান্তের ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল। ফিল্মের সেটে সুশান্তর সঙ্গে খুবই বিনয়ী আচরণ করেছিলেন এবং তাঁর ক্যামিও চরিত্রটি নিয়ে খুব খুশি ছিলেন। জানিয়েছেন সেক্রেড গেমস ওয়েব সিরিজ এর অভিনেতা।

সইফ জানিয়েছেন, জ্যোতির্বিদ্যা, দর্শন সহ নানা বিষয় নিয়ে কথা বলতে ভালোবাসতেন সুশান্ত। এমনকি তিনি মনে করেছিলেন সুশান্ত তাঁর চেয়েও গুণী অভিনেতা।

গত ১৪ জুন বান্দ্রার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয় সুশান্ত সিং রাজপুত এর ঝুলন্ত দেহ। পুলিশ প্রাথমিক তদন্ত থেকে জানাচ্ছে তিনি আত্মঘাতী হয়েছেন। বহুদিন ধরে অবসাদে ভুগছিলেন তিনি। যদিও একের পর এক নানা রকমের তথ্য উঠে আসার ফলে সুশান্তের অনুরাগীরা মানতে নারাজ যে তিনি আত্মহত্যা করেছিলেন। অনেকেই মনে করছেন আত্মহত্যা করলেও তার পিছনে রয়েছে বড় রহস্য। তাই ঘটনাটির বিষয়ে তদন্ত করছে মুম্বই পুলিশ।

এখনো পর্যন্ত ২৮ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে মুম্বাই পুলিশ। এদের মধ্যে রয়েছেন সুশান্তের পরিবার বন্ধু-বান্ধব ও কাজের সূত্রে যুক্ত কয়েকজন। বয়ান রেকর্ড করা হয়েছে সুশান্তের বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তী ও তার ভাই সৌভিক চক্রবর্তীর। সুশান্ত রিয়া ও সৌভিকের সঙ্গে একটি বিজনেস শুরু করেছিলেন। সেই বিষয়টিও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

এছাড়াও সুশান্তের কয়েকজন বন্ধুরা জানিয়েছেন, সুশান্ত বিগত কয়েক মাস ধরে ভাবতেন কেউ তাঁর ভাবমূর্তি নষ্ট করার চেষ্টা করছে। কয়েক মাস ধরে আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছিলেন সুশান্ত। প্রায়ই বলতেন কেউ তাঁর কেরিয়ার ধ্বংস করে দিতে চাইছে। প্রয়াত অভিনেতার মৃত্যু ঘিরে ক্রমশ রহস্য দানা বাঁধছে। ঘটনার তদন্ত করছে মুম্বই পুলিশ।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ