মুম্বই: বিতর্কের আরেক নাম রাজা চৌধুরি৷ ফের মদ্যপ অবস্থায় বেসামাল হলেন এই টেলি অভিনেতা৷ শুক্রবার রাতে নেশায় বুঁদ হয়ে ‘বিথুর’ নামে একটি ভোজপুরি সিনেমার শ্যুটিং সেটে পৌঁছান রাজা৷ ইউনিটের ক্রিউ মেম্বাররা তাঁকে বাঁধা দিতে গেলে গালিগালাজ শুরু করেন৷ অবশেষে কানপুর থানার পুলিস এসে তাঁকে গ্রেফতার করে৷

সূ্ত্রের খবর, মাসখানেক আগে এই সিনেমারই শ্যুটিং সেটে মদ্যপ অবস্থা পরিচালকের সঙ্গে উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় করেন তিনি৷ সেই সময়ই সিনেমা থেকে অফিশিয়ালি বাদ দেওয়া হয় রাজাকে৷ যদিও ঘটনাটির পর নয়া নায়ক এন্ট্রি নেন রাজার জায়গায়৷ এতদিন শান্তিতেই শ্যুটিং চলছিল৷ কিন্তু হঠাৎ এদিন কানপুরের নানা রাও পার্কে চলে আসেন এই অভিনেতা৷

এসেই সিনেমার সিনিয়র ক্যামেরাম্যান রাজু আর দ্বুইবেদীকে মারধর করতে শুরু করে৷ তাঁকে বাঁধা দিতে গেলে ইউনিটের ক্রিউ মেম্বারদের গায়েও হাত তোলেন তিনি৷ অবশেষে স্থানীয় থানার পুলিস এসে অভিনেতাকে গ্রেফতার করেন৷যদিও এতেই রাজার কীর্তি থেমে নেই৷ পুলিশ থানায় নিয়ে যাওয়ার সময়েও অকথ্য ভাষা গালিগালাজ, পুলিসদের নিয়ে মসকরা করেন তিনি৷ এমনকি তাঁকে মেডিক্যাল টেস্টের জন্য নিয়ে গেলে চিকিৎসকদের সঙ্গে অশালীন আচরণ করেন৷

শুধু ভোজপুরি ইন্ডাস্ট্রি নয় রাজা চৌধুরি একজন হিন্দি টেলিভিশনের পরিচিত মুখ৷ ‘বিগ বস সিজন ২’-এর প্রতিযোগী ছিলেন এই অভিনেতা৷ পাশাপাশি তিনি বড়পর্দাতেও বেশ কয়েকটা সিনেমায় অভিনয় করেন৷ তবে তাঁর অসভ্য আচরণের জন্যে কেরিয়ারও নিম্নমুখী হয়৷ অতীতেও তাঁর বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ উঠেছিল৷ প্রসঙ্গত, জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্বেতা তিওয়ারীর সঙ্গে ডিভোর্স হওয়ার প্রধান কারণই ছিল নেশা এবং তাঁর আচরণ৷ শোনা য়ায়, শ্বেতাকে মারধরও করতেন তিনি৷ ২০১২ সালে দুজনের মধ্যে বিচ্ছেদ হয়৷ এই দুই অভিনেতারই মেয়ে হলেন পলক তিওয়ারী৷ যদিও শনিবারের ঘটনাটি নিয়ে এখনও তাঁর পক্ষ থেকে কোন মন্তব্য করা হয়নি৷ আপাতত এই ঘটনার পর রাজা চৌধুরী রয়েছেন শ্রীঘরেই৷