কলকাতা: নেপাল থেকে ২৪৭ জন পরিযায়ী শ্রমিককে ঘরে ফিরিয়েছেন অভিনেতা তথা সাংসদ দেব। এবার জম্মু ও কাশ্মীরে আটকে পড়া পর্যটকদের ত্রাতার ভূমিকা পালন করলেন তিনি। তাঁদেরও ঘরে ফেরালেন দেব। জম্মু-কাশ্মীরে বেড়াতে গিয়ে লকডাউনের জন্য আটকে পড়েছিলেন ৩৯ জন পর্যটক।

তাঁরা জানতে পারেন দেব নেপাল থেকে ঘাটালে পরিযায়ী শ্রমিকদেরকে ফিরিয়েছেন। তখন এই পর্যটকরাও দেবের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। আর দেব নিজের কর্তব্য পালন করে তাদের সোমবার ঘরে ফেরান।

লকডাউন এর আগে বেড়াতে গিয়ে এঁরা হোটেলে আটকে ছিলেন। বিভিন্নভাবে চেষ্টা করেও কোন লাভ হয়নি। স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন তাঁরা। অবশেষে একটা সময় টাকা শেষ হয়ে যায়। এরপর এই নেপাল থেকে পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরানোর কথা জানতে পারেন তাঁরা। সেই মতই দেবের সঙ্গে যোগাযোগ করেন এই পর্যটকরা।

দেব নিজেই তখন জম্মু-কাশ্মীরের প্রশাসনের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। সেখান থেকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রকের নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল এর কাছে খবর পৌঁছয়। তিনি যথেষ্ট তৎপরতার সঙ্গে এই কাজ করেন এবং পর্যটকরা ঘরে ফেরার ছাড়পত্র পান।

প্রসঙ্গত সম্প্রতি নেপাল থেকে পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফিরিয়েছেন সুপারস্টার দেব। এই খবর নিজেই টুইট করে প্রকাশ করেছেন দেব। আর তার জন্য তাঁর অনুরাগীরা প্রশংসায় পঞ্চমুখ।

তবে এই গোটা কর্মকাণ্ড মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ছাড়া সম্ভব হতো না বলে জানিয়েছেন দেব। তারকা সংসদ টুইট করেছেন, “২০০ জনেরও বেশি শ্রমিককে নেপাল বর্ডার থেকে ঘাটালে সুরক্ষিতভাবে পৌঁছে দেওয়া সম্ভব হয়েছে। এজন্য আমি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তাঁর টিমের সদস্যদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি। পাশাপাশি, দার্জিলিঙের সিএস, ডিএম, গৌতম সান্যাল সহ অন্যান্যদেরকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। “

যারা ফিরেছেন তারা আগামী ১৪ দিন নিজেদের আইসোলেট রাখবেন বলেও জানা গিয়েছে। ঘাটাল ছাড়াও অন্যান্য জেলা যেমন হাওড়া হুগলি তেও বিভিন্ন জায়গায় পরিযায়ী শ্রমিকরা ফিরেছেন। তবে এখনো নেপালের বর্ডারে আটকে রয়েছেন অনেকেই। তাঁদেরকে ফিরিয়ে আনা হবে এমন আশ্বাসও দিয়েছেন দেব। এই ২৪৭ জনকে ফিরিয়ে আনার আগেও ৩৫ জন পরিযায়ী শ্রমিককে নেপাল থেকে ফিরিয়েছিলেন তারকা সাংসদ।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ