নয়াদিল্লি: দিল্লির সংঘর্ষের পরিস্থিতি এখন অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। নতুন করে কোনও সংঘর্ষের খবর পাওয়া যায়নি। এবার দিল্লির ঘটনায় উঠে এসেছে আপ নেতার নাম।

তাহির হুসেন নামে ওই নেতার বিরুদ্ধে উঠেছে ঘোরতর অভিযোগ। আইবি অফিসার খুনের ঘটনায় তার নাম উঠে এসেছে। যদিও তিনি অভিযোগ অস্বীকার করেন। তবে তাঁর বাড়ির ছাদ থেকে অ্যাসিড ভর্তি প্যাকেট উদ্ধার হওয়ায় জল্পনা নতুন মোড় নিয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালেই পেট্রোল বোমা ও পাথর ভর্তি প্যাকেট পাওয়া যায় তাহিরের বাড়ি থেকে। এমনকি একটি ভিডিও দেখা যাচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়, যেখানে ছাদে হাঁটছেন তাহির আর তাঁর সঙ্গীরা পাথর ছুঁড়ছে। এরপর ওই কেমিক্যাল ভর্তি প্যাকেট পাওয়া যায়। সংবাদমাধ্যমে দেখানো হয়েছে সেই ভিডিও।

অঙ্কিতের পরিবারের অভিযোগ, আপের নেতা তাহির হুসেনের সমর্থকরাই তাঁর ছেলে অঙ্কিতকে হত্যা করেছে৷ শুধু তাই নয়, প্রথমে বেধড়ক মারা হয়েছে তাঁর ছেলেকে৷ তারপর তাঁর ছেলের মৃত্যু নিশ্চিত করতে একাধিকবার গুলিও করা হয়েছে৷যদিও, এ সবই অনুমান, দেহ এখন ময়না তদন্তে পাঠানো হয়েছে৷ প্রয়াত অঙ্কিত শর্মার প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন, শুধু এই হত্যার সঙ্গে তাহির জড়িয়ে আছেন, এমন নয়৷ যেদিন গোলমাল হয়, সেদিন তাহিরের বাড়িই ছিল দুষ্কৃতীদের ঘাঁটি৷ সেখান থেকে পেট্রল বোমা, ইঁট ছোড়া হয় বলেও অভিযোগ করেছেন স্থানীয়রা।

ঘটনার সমর্থনে একটি ভিডিও সংবাদ মাধ্যমে দিয়েছেন তাঁরা৷ সেটিতে একজনকে লাঠি হাতে দেখা যাচ্ছে৷ তবে সেটি তাহির হুসেন কি না, সেটাও স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে না৷ এই অভিযোগের উত্তর দিয়ে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন অভিযুক্ত আপ নেতা তাহির হুসেন৷ তিনি বলেছেন, ‘এটি একটি ভুয়ো ভিডিও।’