বারাণসী: ফের একবার ধরাশায়ী হল আরএসএসের ছাত্র সংগঠন এভিবিপি। কংগ্রেসের স্টুডেন্টস ইউনিয়ন ন্যাশনাল স্টুডেন্টস ইউনিয়ন অফ ইন্ডীয়ার চারটি আসনেই পরাজয় করেছে অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদকে। বারানসির সম্পূর্ণানন্দ সংস্কৃত বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদ নির্বাচনে পরাজয় এবিভিপির।

সংস্কৃত বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের সভাপতি পদে এনএসইউআইয়ের শিবম শুক্লা বিপুল ব্যবধানে জিতেছেন। কংগ্রেসের ছাত্র সংগঠন সহ-সভাপতি পদেও বড় ব্যবধানে জিতেছে। অন্যদিকে, অবনীশ পাণ্ডে সাধারণ সম্পাদক পদটি পেয়েছেন এবং রজনীকান্ত দুবে লাইব্রেরিয়ান পদের অধিকারি হয়েছেন।

শিবম যেখানে ৭০৯টি ভোট পেয়েছেন, সেখানে এবিভিপি পেয়েছে মাত্র ২২৪টি ভোট। চন্দন কুমার মিশ্র পেয়েছেন ৫৫৩টি ভোট। অবনীশ পাণ্ডে সাধারণ সম্পাদক পদে ৪৮৭ ভোট তেমনই রজনীকান্ত দুবে লাইব্রেরিয়ান পদের অধিকারি হয়ে পেয়েছেন ৫৬৭টি ভোট।

নির্বাচন অফিসার প্রফেসর শৈলেশ কুমার মিশ্র ফলাফল ঘোষণা করেছেন উপাচার্য প্রফেসর রাজারাম শুক্লা শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানটি রেখেছেন।

প্রফেসর শুক্লা জানিয়েছেন, জয়ী প্রার্থীরা সমালোচনা থেকে দূরে রাখতে ক্যাম্পাস চত্বরে কোনও শোভাযাত্রা করতে পারবেন না”। ফলাফলের পর পুলিশি নিরাপত্তায় জয়ীদের বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

বারানসির সম্পূর্ণানন্দ সংস্কৃত বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্বাচনে মোট ৫০.৮২ শতাংশ ভোটগ্রহণ হয়েছে বলেই জানা গিয়েছে। মোট ভোটার সংখ্যা ১৯৫০ জন। তাঁদের মধ্যে ৯৬০ জন পুরুষ এবং ৬০ জন মহিলা রয়েছেন।

বারাণসীর সংস্কৃত বিশ্ববিদ্যালয়টি ২২৫ বছরের। গোটা দেশের অন্তত ১০০টি কলেজ বেনারস সম্পূর্ণানন্দ সংস্কৃত বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে যুক্ত। প্রায় ১ লক্ষ ছাত্রছাত্রী এই বিশ্ববিদ্যালয়টির অধীন কলেজগুলিতে পড়াশোনা করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ক্যাম্পাসে পড়াশোনা করেন ১৯৫০ জন ছাত্র। এর মধ্যে ভোট দিয়েছিলেন ৯৯১ জন।

উল্লেখ্য, এই বিশ্ববিদ্যালয়টিতে দীর্ঘদিন ধরে ভাল ফল করে আসছে এবিভিপি। গতবছরের নির্বাচনেও এবিভিপি চারটি গুরুত্বপূর্ণ আসনেই জয় পেয়েছিল তাঁরা। কিন্তু, এবছর একেবারে ধরাশায়ী হতে হল সংঘের ছাত্র সংগঠনকে।