নয়াদিল্লি: দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ে উত্তর ক্যাম্পাসে রাতারাতি স্বাধীনতা সংগ্রামীদের মূর্তি স্থাপন করল এবিভিপি। সোমবার রাতেই এমন উদ্যোগ নিয়েছে তাঁরা বলে জানা গিয়েছে। রাতারাতি একটি স্তম্ভ খাঁড়া করে তার উপরে ভি ডি সাভারকার, ভগত সিং এবং সুভাষ চন্দ্র বসুর আবক্ষ মূর্তি স্থাপন করা হয়েছে বলে খবর। দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদের স্টুডেন্ট ইউনিয়ন (ডিইউএসইউ) এই কাজ করেছে বলে জানা গিয়েছে।

রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সংঘ পরিচালিত ছাত্র সংগঠন এই অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদ বা এবিভিপি। মূর্তি স্থাপনের কারণ হিসেবে এবিভিপি নেতা এবং ডিইউএসইউ-এর সভাপতি শক্তি সিং এএনআই-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, এই ক্যাম্পাসে একটি সুড়ঙ্গ ছিল যেখানে ভগত সিংকে বন্দী করে রাখা হয়ে ছিল। আমরা দাবি করেছি এখানে ভগত সিং-এর একটি মূর্তি স্থাপন করা হোক নয় তো এই সুড়ঙ্গটি জন সাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হোক। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কোন রকম সাড়া দেয় নি। সুতরাং আমাদের এই কাজ করা ছাড়া কোন উপায় ছিল না।

সেই সঙ্গে তিনি দাবি করেন, তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে গত নভেম্বর থেকে শুরু করে চলতি বছরের মার্চ, এপ্রিল এবং অগস্টে একটি মিনার স্থাপন করার আবেদন জানিয়ে আসছেন। কিন্তু, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এই কথারও কোন আমল দেয়নি। যদি কেউ স্তম্ভের ফলকের দিকে নজর দেন তবে তিনি ডিইউএসইউ-এর সভাপতি শক্তি সিংয়ের নাম স্থাপক হিসাবে দেখতে পাবেন। তাঁরা এটাও জানিয়েছেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের কোন রকম অনুমতি ছাড়াই তাঁরা এই মূর্তি স্থাপন করেছেন।

রাত ২ টো নাগাদ এবিভিপি বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটকের পাশে মূর্তিগুলি নির্মাণ করে। যে ঘটনার তীব্র সমালোচনা করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য ছাত্র সংগঠনগুলি। বিশেষ করে সাভারকরের মূর্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে স্থাপন করায় কংগ্রেস অনুমোদিত ন্যাশনাল স্টুডেন্টস অফ ইন্ডিয়া (এনএসইউআই) এবং বাম পরিচালিত ছাত্র সংগঠন অল ইন্ডিয়া স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন (এআইএসএ) দ্বারা সমালোচনার মুখে পড়েছে আরএসএস পরিচালিত ছাত্র সংগঠনের এই কাজ।