বারাসত: রাজ্যের ৪২ আসনের মধ্যে ১৮টি দখল করেছে পদ্ম শিবির। এবার লক্ষ্য বিধানসভা কিন্তু তার আগেই রাজ্যের শিক্ষাঙ্গনের মধ্যে দাপট দেখাচ্ছে গেরুয়া ছাত্র সংগঠন অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদ বা এবিভিপি।

শনিবার উত্তর ২৪ পরগনা জেলার নহাটা যোগেন্দ্রনাথ মণ্ডল স্মৃতি মহাবিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদ দখল করে এবিভিপি। ওই কলেজটি চৌবেরিয়া দুই নং গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত। যা বনগাঁ লোকসভার অধীন। লোকসভা নির্বাচনে ওই কেন্দ্রে জিতেছেন বিজেপি প্রার্থী শান্তনু ঠাকুর।

এই বিষয়ে অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদের উত্তর ২৪ পরগনা জেলা প্রমুখ স্বপন ঘোষ ও জেলা সম্পাদক শুভজিত কর্মকার জানিয়েছেন যে আজ নহাটা যোগেন্দ্রনাথ মন্ডল স্মৃতি মহাবিদ্যালয়ে ইউনিট গঠন হল এবং আগামী দিনে সঠিক ভাবে কলেজ পরিচালনা করা এবং ভর্তির নামে দুর্নীতি বন্ধ করে সঠিক শিক্ষা ব্যবস্থা শুরু করার লক্ষে এবিভিপি কলেজে পদার্পণ করল।

লোকসভা নির্বাচনের ফল ঘোষণার পর থেকেই রাজ্যে মাথাচারা দিতে শুরু করেছে বিজেপি। সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের পরের দিন শুক্রবারে নদিয়া জেলার বগুলা কলেজের ছাত্র সংসদ দখল করে এবিভিপি। রানাঘাট লোকসভা কেন্দ্রের অধীনে পরে ওই কলেজ। নদিয়া জেলার রানাঘাট কেন্দ্রটিও গিয়েছে পদ্মের দখলে।

অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদের রাজ্য নেতৃত্ব অরিবিন্দ দত্ত বলেন, ‘‘রাজ্যের শিক্ষা জগতে অরাজকতার পরিবেশ তৈরি হয়েছিল৷ মানুষ তার থেকে পরিত্রাণ চাইছেন৷ সেই কারণেই বগুলা কলেজের পড়ুয়ারা ছাত্র সংসদ এবিভিপির হাতে তুলে দিয়েছে৷’’

কলেজে ভরতির ক্ষেত্রে দুর্নীতি নিয়েও এদিন সরব হন অরবিন্দ দত্ত৷ বলেন, ‘‘কলেজে ভরতি থেকে সবকিছুর জন্যই তৃণমূলকে অর্থ দিতে হয়৷ ফলে বহু দুস্থ মেধাবী পড়ুয়া অর্থের অভাবে পড়তে পারে না৷ এবার এর থেকে মুক্তি চাইছেন মানুষ৷ যার কারণেই এবিভিপির উত্থান হচ্ছে৷’’