প্রতীকী ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, সিউড়ি: এলাকার কয়েকজন মহিলা তৃণমূল কর্মীকে ডাইনি অপবাদ দিয়ে বেধড়ক মারধর করার অভিযোগ উঠেছে৷ মারধরের ঘটনায় নাম জড়িয়েছে বিজেপির কর্মী, সমর্থকদের৷ বাংলা-ঝাড়খন্ড সীমানা এলাকার গ্রাম কদমহীড়ের ঘটনা৷ ঘটনায় আটজন তৃণমূল কর্মী আহত হয়েছেন৷

অভিযোগ, তৃণমূলের বেশ কয়েকজন মহিলাকর্মীকে ডাইনি অপবাদ দিয়ে মারধর করেন বিজেপির কর্মী, সমর্থকরা৷ এই ঘটনায় বিজেপির সদস্য অমল মুর্মুর মদত রয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে৷ কদমহীড় গ্রামের এই ঘটনায় আহত তৃণমূলের মোট আটজন সদস্য৷

আহতরা সকলেই মহম্মদবাজার প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসাধীন৷ বৃহস্পতিবার গ্রামেরই এক যুবক স্বপন মুর্মুর (২৭) পথদুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়৷ এরপরই একদল মানুষ অভিযোগ তোলেন গ্রামের কয়েকজন মহিলার নামে৷ অপবাদ দেওয়া হয় তাঁদের মধ্যে ডাইনি শক্তি রয়েছে৷

আরও পড়ুন: হিন্দুত্ব থেকে ১৫ লক্ষ! মোদীকে যে ১০ বানে বিঁধলেন রাহুল

আক্রান্তদের পরিবারের সকলেই তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী বলে জানা গিয়েছে৷ অভিযোগ, ওই মহিলাদের ডাইনি অপবাদ দিয়ে বলা হয় স্বপনের মৃত্যু জন্য তাঁরাই দায়ী৷ অভিযোগ, এরপরই শুরু হয় এলোপাথারি কিলঘুষি, লাঠি দিয়ে মারধর, পাথর ছোড়া৷ এমনকী তাঁদের বাড়িতেও হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ৷

পরে ঘটনাস্থলে যান মহম্মদবাজার থানার বিশাল পুলিশবাহিনী৷ দীর্ঘ দু’ঘণ্টা পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে৷ তৃণমূলের পক্ষ থেকে মহম্মদবাজার থানায় মোট ১৫ জনের নামে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়৷ সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছে বিজেপি নেতৃত্ব৷

স্বামীর সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে বস্ত্র ব্যবসাকে অন্যমাত্রা দিয়েছেন।'প্রশ্ন অনেকে'-এ মুখোমুখি দশভূজা স্বর্ণালী কাঞ্জিলাল I