নয়াদিল্লি: আইবি অফিসার খুনে অভিযুক্ত বহিষ্কৃত আপ নেতা তাহির হুসেন নিখোঁজ বলে জানিয়েছে দিল্লি পুলিশ। এদিকে, নিখোঁজ থাকা অবস্থাতেই দিল্লির আদালতে আগাম জামিন চেয়ে আবেদন জানিয়েছেন তাহির। বুধবার আদালতে তাহিরের আগাম জামিনের আবেদনের শুনানি।

উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে সংঘর্ষ চলাকালীন আইবি অফিসার অঙ্কিত শর্মাকে খুনের অভিযোগ তাহির হোসেনের বিরুদ্ধে। ইতিমধ্যেই তাহিরকে সাসপেন্ড করেছে তার দল আম আদমি পার্টি। তাহিরকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না বলে মঙ্গলবার জানিয়েছে দিল্লি পুলিশ।

গত সপ্তাহে দিল্লিতে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন সমর্থনকারী ও বিরোধীদের মধ্যে তুমুল সংঘর্ষ বাধে। মূলত উত্তর-পূর্ব দিল্লির বিভিন্ন এলাকায় এই সংঘর্ষ ছড়ায়। সংঘর্ষে এখনও পর্যন্ত ৪৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন দু’শোরও বেশি মানুষ। ৭০ জনের কাছাকাছি গুলিবিদ্ধ হয়ে দিল্লির বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে সংঘর্ষ চলাকালীন জাফরাবাদে তৎকালীন আপ কাউন্সিলর তাহির হুসেনের বাড়ির সামনের নালা থেকে উদ্ধার হয় আইবি অফিসার অঙ্কিত শর্মার রক্তাক্ত-ক্ষতবিক্ষত দেহ। ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানোর পর গুলি করে খুন করা হয় অঙ্কিতকে। সেই খুনে নাম জড়ায় আপ নেতা তাহির হুসেনের। নিহত অঙ্কিতের বাবা রবীন্দ্র শর্মা তাহিরের বিরুদ্ধে থানায় তাঁর ছেলেকে খুনের অভিযোগ দায়ের করেন।

সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই তদন্ত শুরু করে পুলিশ। যদিও সংবাদমাধ্যমের সামনে তার বিরুদ্ধে ওঠা সব অভিযোগই তাহির অস্বীকার করে। পরে পুলিশ তাহিরের বাড়িতে তল্লাশি চালাতে যায়। তাহিরের বাড়ির ছাদ থেকে উদ্ধার হয় বোমা-ইট-পাথর।

দলের নেতার বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ উঠতেই তাকে দল থেকে সাসপেন্ড করেছে আপ। এদিকে, দিল্লি পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, অঙ্কিত শর্মাকে খুনে অভিযুক্ত তাহির হুসেন পলাতক। তাকে গ্রেফতার করার চেষ্টা চলছে।

দিল্লিতে সংঘর্ষ চলাকালীন একটি ভিডিও সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। সেই ভিডিওয় দেখা গিয়েছে তাহিরের বাড়ির ছাদ থেকে পাথর এবং বোমা ছোড়া হচ্ছে। যদিও পরে সেই ভিডিওর কথা অস্বীকার করেন তাহির। উল্টে তার উপরই আক্রমণ করা হয়েছে বলে দাবি করেন তাহির হুসেন।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।