কলকাতা: বাংলার মসলিনের ‘নয়নসুখ’-এ  শুরু হয়েছিল যে ফ্যাশন উইক, তা ভাঙল জ্যামিতিক আকারে। ‘বেঙ্গল ফ্যাশন উইক’-এর শেষদিন মার্জার সরণি পেল নাটকীয়-রূপ। এইদিন পিকাসোর জিওমেট্রিক্স থিমে মডেলদের চেহারাকে জ্যামিতিক আকারে ভেঙে র‍্যাম্প মাতালেন ডিজাইনার অভিষেক দত্ত। সেই সঙ্গে মঞ্চে রূপের আগুন ঝরালেন শো স্টপার বলিউডি বিউটি শ্রদ্ধা দাস।bengal-fashion-show-02

‘বেঙ্গল ফ্যাশন উইক’ পা দিল দ্বিতীয় বছরে। তিনদিনের এই ফ্যাশন শোয়ের কার্টেন ক্লোজ হল অভিষেকের কালেকশন। ফ্লোরাল প্রিন্ট ও গ্রাফিক্সের উপর হালফিলের ট্রেন্ডি জ্যাকেট থেকে জামস্যুট, প্যালাজো তো ছিলই আধুনিকাদের জন্য, কিন্তু বাদ পড়েনি বাংলার শাড়িও। তবে ‘বেঙ্গল ফ্যাশন উইক’-এ অভিষেকের হাতে বারোহাত পেয়েছে অন্যরূপ। সাবেকিআনার সঙ্গে সাযুজ্য রেখে বাংলার ঐতিহ্য আটপৌরে হয়েছে আধুনিক৷bengal-fashion-show-04

তবে শুধু মহিলা ওয়ার্ডরোব নয়, বিপরীত লিঙ্গের কথাও মাথায় রেখেছেন ডিজাইনার। জিন্স-প্যান্ট-জ্যাকেটে এইদিন ক্যাটওয়াকে ছিলেন হ্যান্ডসাম হাংকরাও। এককথায় গ্ল্যামারের ঝলকানিতে, রঙীন পোশারকের জেল্লায়, নিত্যনতুন স্টাইলে, রূপের ছটায় আর ‘লাস্ট বাট নথ দ্য লিস্ট‘ বাংলার শাড়িতে ২০১৫-এর ‘কিংফিশার আলট্রা বেঙ্গল ফ্যাশন উইক’ ছিল সুপারডুপারহিট। bengal-fashion-show-03সবশেষে, এবছরের ‘বেঙ্গল ফ্যাশন উইক’-এর প্রাপ্তি প্রত্যাশা বাড়িয়ে দিল আগামী বছরের।

bengal-fashion-show-05                                                                                                                                   মানসী সাহা, ছবি মিতুল দাস