কলকাতাঃ  শুক্রবার শ্যামবাজার এলাকায় সভা ছিল মুখ্যমন্ত্রী ভাইপো অভিষেকের। জাতীয় সঙ্গীত চলাকালীনই নাকি মঞ্চ ছাড়েন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এমনই খবর প্রকাশ্যে আসতে চাঞ্চল্য তৈরি হয়। বিভিন্ন মহল থেকেই যুবরাজের এহেন ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তোলা হয়। কিন্তু আজ শনিবার সকাল হতেই একটি ভিডিও ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়াতে। যেখানে দেখা যায়, মঞ্চে সবাই যখন জাতীয় সঙ্গীত গাইছেন তখন সিঁড়িতে দাঁড়িয়ে সম্মান জানাচ্ছেন অভিষেক।

সেই ভিডিও সামনে এসেছে অল ইন্ডিয়া তৃণমূল কংগ্রেস সাপোর্টার্স-এর ফেসবুক অ্যাকাউন্ট। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, অভিষেক মঞ্চ থেকে নামার সময়ে সিড়িতে দাঁড়িয়ে জাতীয় সঙ্গীতকে সম্মান প্রদর্শন করছেন। এই অংশটুকু মঞ্চ বা সমাবেশে উপস্থিত থাকা কর্মী সমর্থকদের অনেকেরই চোখ এড়িয়ে গিয়েছে। আর যার ফলেই তৈরি বিপত্তি।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার ব্রিগেড সমাবেশের প্রচারের জন্য শ্যামবাজারে সভার আয়োজন করে তৃণমূল। সেই সভার মূল বক্তা ছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। মঞ্চে হাজির ছিলেন সুদীপ ও নয়না বন্দ্যোপাধ্যায়, শশী পাঁজা, মদন মিত্র, সাধন পাণ্ডে, ফিরহাদ হাকিমের মতো ব্যক্তিরা। তাঁদের সঙ্গে এক সারিতে হাজির ছিলেন তৃণমূলের রাজ্যসভার প্রাক্তন সাংসদ কুণাল ঘোষ।

সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে দলনেত্রী মমতাকে সুভাষ চন্দ্র বোসের সঙ্গে তুলনা করেন অভিষেক। তিনি বলেন, “৮০ বছর আগে এক বাঙালি ‘দিল্লি চলো’ ডাক দিয়েছিলেন। আজ আরেক বাঙালি ‘দিল্লি চলো’র ডাক দিচ্ছেন। সেই বাঙালি ইংরেজদের বিরুদ্ধে লড়তে কংগ্রেস ছেড়েছিলেন। এই বাঙালি বাম অপশাসন রুখতে কংগ্রেস ছেড়েছিলেন।” নেতাজীর সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তুলনা টানায় করতালি উপচে পড়ে সভাস্থলে।