ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: বিরোধীদের নিজেদের ভোটটা দেওয়ার সুযোগ করে দিন। এরপর ১৭ মে তো ওদের মুখে কালি মাখার দিন। বাঁকুড়ার সিমলাপালে গিয়ে এমনটাই বলে এলেন তৃণমূলের যুব সভাপতি, সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন: নরেন্দ্র মোদী শ্রীরামের এবং অমিত শাহ লক্ষ্মণের অবতার : বিজেপি বিধায়ক

সিমলাপালের বিক্রমপুরে দলীয় শুক্রবার সভা করেন সাংসদ অভিষেক।এই নিয়ে দ্বিতীয়বার ভোটের প্রচারে বাঁকুড়া এলেন তিনি। এদিন সভামঞ্চ থেকে সাংসদ বলেন, “সিপিএম, কংগ্রেস, বিজেপি–সহ বিরোধীরা যেন নিজেদের ভোটটা নিজেরা দিতে পারে।” এরপরই অভিষেকের কটাক্ষ, “ওরা ১৪ তারিখ ভোট দিয়ে আঙুলে কালি লাগাবে। আর ১৭ তারিখ মানুষ ওদের মুখে কালি মাখাবেন।”

এদিন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ভোটের লড়াই গণতান্ত্রিক পথেই হচ্ছে। বাঁকুড়া জেলা পরিষদের ৩১টি আসনে ইতিমধ্যেই তৃণমূল জিতে গিয়েছে। বাকি আসনগুলিতেও তৃণমূলকে জিতিয়ে বিরোধীশূন্য করার ডাক দেন অভিষেক। পাশাপাশি তোপ দাগেন কেন্দ্রীয় সরকার ও বিজেপির বিরুদ্ধে।

আরও পড়ুন: আয়কর দফতর চার্জশিট দাখিল চিদম্বরমের পরিবারের বিরুদ্ধে

বলেন, ছবি ও সই–সহ দুলালের তালমিছরি কিনতে বলা হয়। কারণ সেটাই আসল। একইভাবে “ভোটের বাজারে অনেক ফুল দেখতে পাবেন। তবে জানবেন ঘাসের উপর জোড়া ফুলই আসল ফুল।” তাই বাঁকুড়ার মানুষ জোড়া ফুলে ভোট দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত যেন শক্ত করেন তারই আবেদন জানান সাংসদ।

এদিনের সভায় উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রী শ্যামল সাঁতরা, বিদায়ী সভাধিপতি অরূপ চক্রবর্তী, সাংসদ সৌমিত্র খাঁ–সহ জেলা নেতৃত্ব।

আরও পড়ুন: ভোট দিতে বিয়েবাড়ি যেতে হবে এই গ্রামের ভোটারদের