নয়াদিল্লি: না পরিবর্তন হল হ্যাঁ তে৷ মতবিরোধ ভুলে আম আদমি পার্টির সঙ্গে জোটে যেতে রাজি হয়েছে কংগ্রেস৷ সূত্রের খবর, দিল্লি ও হরিয়ানা এই দুই রাজ্যে কংগ্রেসের সঙ্গে হাত মিলিয়ে ভোটে লড়বে আপ৷ যদিও দুই দলের তরফে কোনও আনুষ্ঠানিক ঘোষণা করা হয়নি৷

দিল্লিতে সাতটি লোকসভা আসন রয়েছে৷ এর মধ্যে কংগ্রেসকে তিনটি আসন ছেড়ে দিতে রাজি হয়েছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল৷ কংগ্রেসকে প্রথমে দুটির বেশি আসন ছাড়তে রাজি ছিলেন না আপ সুপ্রিমো৷ পরে কংগ্রেসের সঙ্গে দরকষাকষির পর আরও একটি আসন ছেড়ে দেয় আপ৷ যে আসনগুলি কংগ্রেসকে ছাড়া হয়েছে সেগুলি হল নিউ দিল্লি, চাঁদনি চক এবং নর্থ ইস্ট দিল্লি৷ কেজরিওয়ালের দল আপ লড়বে চারটি আসনে৷ হরিয়ানাতে ১০টি লোকসভা আসন রয়েছে৷ সেখানে কোন শর্তে আসনরফা হয়েছে তা জানা যায়নি৷ তবে দিল্লি ও হরিয়ানার বাইরে গোয়া এবংপঞ্জাবে কংগ্রেসের সঙ্গে জোটে যাওয়া নিয়ে কথাবার্তা চালাচ্ছে আপ৷

অথচ কয়েকদিন আগে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন কংগ্রেসের সঙ্গে কোনও জোট হচ্ছে না৷ আপের ঘোষণার আগেই দিল্লি কংগ্রেস নেতৃত্ব হাইকমান্ডকে জানিয়ে দেয়, লোকসভা ভোটে তারা নিজস্ব শক্তিতে লড়তে চায়৷ মার্চ মাসে সেটা স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছিল৷ দিল্লির কংগ্রেস সভাপতি শীলা দীক্ষিতের সঙ্গে আলোচনার পরই এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছিল হাইকমান্ড৷

এমনিতেই আপের সঙ্গে কংগ্রেসের সম্পর্ক খুব একটা মধুর নয়৷ বিজেপিকে রুখতে আপের সঙ্গে আসন সমঝোতায় যেতে অনীহা ছিল রাহুল গান্ধীর দলের৷ তারপরেও কংগ্রেসের সঙ্গে জোটে যেতে মরিয়া চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিলেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল৷ বারবার রাহুল গান্ধীকে প্রস্তাব পাঠান৷ আর প্রতিবার তা প্রত্যাখাত করেন রাহুল গান্ধী৷ এবার কেজরিওয়ালের সেই চেষ্টা সফল হল বলে মত রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের৷