নয়াদিল্লি: এখন বিভিন্ন কারণে আধার কার্ড অনেক প্রয়োজনীয় হয়ে উঠেছে। বেশ কিছু সরকারি স্কিমের সুবিধা নিতে এবং আয়কর রিটার্ন দাখিল করতেও আপনার আধার থাকতে হবে। এসব কারণে মোবাইল নম্বরটি আধারের সঙ্গে লিংক করতে হবে। কারণ, আপনি যদি আধার সম্পর্কিত কোনও আর্থিক লেনদেন করেন তবে তার যাচাইয়ের জন্য ওটিপি আসবে। নিবন্ধিত মোবাইল নম্বর বা ইমেল আইডিতেই এই ওটিপি আসে। সুতরাং আপনার মোবাইল নম্বরটি ইউআইডিএআই ওয়েবসাইটে নিবন্ধিত করা উচিত।

আধার সঙ্গে নতুন মোবাইল নম্বর কীভাবে আপডেট করবেন

আপনি যদি mAadhaar অ্যাপটি ব্যবহার করতে চান তবে আপনার মোবাইল নম্বরটি আধারের সঙ্গে লিংক হওয়া জরুরি। আপনি আপনার বর্তমান মোবাইল নম্বরটি আধারের সঙ্গে যুক্ত করতে পারেন। আধার নম্বরটির সঙ্গে নতুন মোবাইল নম্বর লিঙ্ক করা বেশ সহজ।

আরও পড়ুন – একসঙ্গে পাঁচ রোগী দেখার অদ্ভুত ক্ষমতা ডাক্তারবাবুর, মৃত্যুতে শোকের ছায়া

যদি আপনার মোবাইল নম্বর আধার বন্ধ করা হয়, হারিয়ে গিয়ে থাকে বা পরিবর্তন হয়ে যায়, নতুন নম্বর লিঙ্ক করতে চান সেক্ষেত্রে আপনাকে আধার নিবন্ধকরণ কেন্দ্রে যেতে হবে এবং এটির জন্য নিবন্ধন করতে হবে।

আধারের সঙ্গে মোবাইল নম্বর যুক্ত করার পদক্ষেপ

  • আপনার এলাকার আধার নিবন্ধকরণ কেন্দ্রে যান।
  • ফোন নম্বর লিঙ্ক করার জন্য আপনাকে একটি ফর্ম দেওয়া হবে। একে আধার সংশোধন ফর্ম বলা হয়। সঠিক তথ্য দিয়ে এটি পূরণ করুন।
  • ভর্তি ফর্মটি আধিকারিককে দিয়ে ২৫ টাকা জমা দিন।
  • ফর্ম জমা দেওয়ার পরে, আপনাকে একটি স্লিপ দেওয়া হবে। এই স্লিপে আপডেট রিকোয়েস্ট নম্বর থাকবে। এটি দিয়ে আপনি পরীক্ষা করতে পারবেন যে নতুন ফোন নম্বরটি আপনার আধারের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে কিনা।
  • আপনার আধার তিন মাসের মধ্যে নতুন মোবাইল নম্বরটিতে লিঙ্ক হয়ে যাবে। যখন আপনার আধারটি নতুন মোবাইল নম্বরের সঙ্গে যুক্ত হবে তখন আপনার এই নম্বরটিতে ওটিপি আসবে।
  • আপনি এই ওটিপি ব্যবহার করে আপনার আধার কার্ডটি অনলাইনে ডাউনলোড করতে পারেন। আপনি ইউআইডিএআইয়ের টোল ফ্রি নম্বর ১৯৪৭ এ কল করে আধার থেকে একটি নতুন মোবাইল নম্বর লিঙ্ক করার স্থিতিও জানতে পারবেন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।