মুম্বই- বিতর্কের মুখে পড়লেন বিজেপি বিধায়ক। সম্প্রতি একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। সেখানে দেখা যাচ্ছে হাতে মদের বোতল নিয়ে পানশালায় কোমর দোলাচ্ছেন মহারাষ্ট্রের গোন্ডিয়া জেলার বিজেপি বিধায়ক সঞ্জয় পুরম।

বিজেপি বিধায়ক যখন পানশালায় মত্ত, তখনই সেখানে উপস্থিত কেউ তাঁর একটি ভিডিও করেন। ফলস্বরূপ নেশাগ্রস্ত অবস্থায় নর্তকীর সঙ্গে তাঁর নাচ মুহূর্তে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়।

সামনেই মহারাষ্ট্রে বিধানসভা নির্বাচন। সঞ্জয় পুরম দেঁওড়ির বিজেপি প্রার্থী হিসেবে দাঁড়িয়েছেন। আর তার ঠিক আগেই এই ভিডিও ছড়িয়ে পড়ায় বেশ বিপাকে পড়েছেন বিজেপি বিধায়ক।

এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে, তিনি থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগ, নির্বাচনের আগে তাঁর বিরুদ্ধে কুৎসা রটানোর চেষ্টা করছেন প্রতিপক্ষরা। যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়, সেই ভিডিওতে তিনি নেই। তাঁর মতোই দেখতে অন্য কেউ ওই নর্তকীর সঙ্গে নাচছেন। এমনই দাবি করেছেন তিনি।

সঞ্জয়ের দাবি, ‌নির্বাচনে আমার সঙ্গে পেরে উঠবে না। তাই আমার বিরুদ্ধে কুৎসা রটিয়ে আমার নাম খারাপ করার চেষ্টা করা হচ্ছে। আমার বিরুদ্ধে চক্রান্ত চলছে। আমি মানুষের পাশে থাকি। তাঁদের বিপদ আপদে আমায় পাওয়া যায়। পাঁচ বছরে অনেক কাজ করেছি। তাই আমাকে হারাতে আমার বিরোধীরা এসব করছেন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.