স্টাফ রিপোর্টার, মঙ্গলকোট: অনুব্রত মণ্ডলের হুমকি চিঠি, বোমা পৌঁছল রেশন ডিলারের বাড়িতে। মঙ্গলবার সকালে এসব পেয়ে ভয়ে কাঁটা ওই রেশন ডিলারের পরিবার। পূর্ব বর্ধমানের মঙ্গলকোটের পালিগ্রামের বাসিন্দা জীবনকুমার বন্দ্যোপাধ্যায় নামে ওই রেশন ডিলার পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছেন।

জানা গিয়েছে, জীবনকুমার বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ির সিঁড়ির ধাপে ধাপে রাখা ছিল চারটি তাজা বোমা। আর একটি খোলা চিঠি। মঙ্গলবার সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর দরজা খুলতেই জীবনকুমারবাবুর দিদি রেখা মুখোপাধ্যায়ের চোখে পরে চিঠি ও বোমাগুলি।

চিঠি খুলতেই বুক কেঁপে ওঠে জীবনকুমারবাবুর ও তাঁর পরিবারের। কারণ ওই হুমকি চিঠিতে নাম রয়েছে অনুব্রত মণ্ডলের। তাঁর স্পষ্ট নির্দেশ, “আমাদের ছেলেরা তৈরি থাকবে। তুমি আজ রাত সাড়ে ন’টার সময় গ্রামের লোকনাথ মন্দিরে টাকা নামিয়ে রেখে আসবে। আমার ছেলেরা লাইটের আলোর সিগন্যাল দেবে।”এমনকি জীবনবাবুর উদ্দেশে এও লেখা রয়েছে, “নির্দেশ অমান্য করলে বাড়িতে ১০ কেজি গাঁজা ও বোমা গুঁজে দেওয়া হবে। তুমি যা ভালো বুঝবে, করবে।”

মঙ্গলকোট থানার পুলিশ বোমাগুলি ও চিঠি উদ্ধার করে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। এখনও অভিযুক্তরা অধরা।

ওই রেশন ডিলার জানিয়েছেন, হুমকি চিঠি তাঁর কাছে প্রথম নয়। গত বৃহস্পতিবার সকালেও এই ধরনের চিঠি বাড়ির দরজার সামনে রেখে গিয়েছিল দুষ্কৃতীরা। তাতে আড়াই লক্ষ টাকা দাবি করে হুমকি দেওয়া হয়েছিল। এমনকি টাকা না দিলে তাঁর ছেলে মেয়ের ক্ষতি করার হুমকিও দেওয়া হয়।

জীবনকুমারবাবু বলেন, “ওই চিঠিটাকে তেমন গুরুত্ব দিইনি। কিন্তু এদিন বোমাগুলি রেখে যাওয়ার পর থেকে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। তাই পুলিশকে জানিয়েছি।”পুলিশ জানিয়েছে, দুটি চিঠিরই হাতের লেখা একইরকম। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। এবিষয়ে এখনও পর্যন্ত অনুব্রত মণ্ডলের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

স্বামীর সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে বস্ত্র ব্যবসাকে অন্যমাত্রা দিয়েছেন।'প্রশ্ন অনেকে'-এ মুখোমুখি দশভূজা স্বর্ণালী কাঞ্জিলাল I