স্টাফ রিপোর্টার, পূর্ব বর্ধমান: পুলিশ ‘কাকুদের’ সহযোগিতায় স্কুল থেকে নিরাপদে বাড়ি ফিরে এল এক পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী৷ শনিবার পঞ্চায়েত ভোটের মনোনয়নপত্র জমা দেওয়াকে কেন্দ্র করে কোর্ট চত্বর তখন উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল৷

আরও পড়ুন: পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে কড়া নজরদারি মালদহে

স্বাভাবিকভাবেই জেলাপরিষদের সামনে কার্জন গেটের দিকে যাবার রাস্তা নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছিল সাধারণ মানুষের যাতায়াত ও যান চলাচলের জন্য। আর এই সময় হরিজন স্কুলের ছাত্রীটি প্রতিদিনের মতোই চলে আসে এই রাস্তায়। প্রথমে পারিপার্শ্বিক পরিস্থিতি দেখে ঘাবড়ে যায় সে৷ পরে অবশ্য পুলিশকাকুরা সাহস জুগিয়ে বাড়ির পথে রওনা করে দেয় তাকে।

প্রত্যেকদিন স্কুল ছুটির পর বর্ধমান শহরের কোর্ট কম্পাউন্ড এলাকা দিয়ে বাড়ি ফেরে ক্লাস ফাইভের ওই স্কুল ছাত্রী৷ শনিবারও তার ব্যতিক্রমও হয় না৷ কিন্তু ওই দিন কোর্ট চত্বরের কাছে আসতেই দিশাহীন হয়ে পড়ে সে৷ কারণ পঞ্চায়েত নির্বাচনের মনোনয়ন জমা দেওয়াকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্র হয়ে ওঠে গোটা এলাকা৷ চারিদিকে পুলিশের দাপাদাপি৷ এরকম তো কখনও দেখেনি৷ তাই ভয়ে কেঁপে ওঠে বুক৷ আতঙ্ক গ্রাস করে ছোট্ট মেয়েটিকে৷

আরও পড়ুন: মনোনয়নের পথে ফব নেতার মুখে কালি লেপা হল

এদিকে কার্জন গেটের বাইরে স্কুল ইউনিফর্ম পড়া একটি মেয়েকে দেখতে পেয়ে ছুটে আসেন কর্তব্যরত পুলিশ কর্মীরা৷ জিজ্ঞাসাবাদের পর তারা জানতে পারেন স্কুল থেকে বাড়ি ফিরছিল সে৷ কিন্তু পারিপার্শ্বিক পরিস্থিতি দেখে ঘাবড়ে যায়৷ এরপর পুলিশ কর্মীরাই তাকে বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করে দেয়৷ ওই বাচ্চা মেয়েটির কাছ থেকে মির্জাপুরের বাড়ির ঠিকানা নিয়ে নেন তারা৷ এরপর মির্জাপুরগামী বাসে তাকে তুলে দেয়৷ সেই সঙ্গে বাস চালক ও কনডাক্টরকে ওই মেয়েটিকে ঠিক মতো বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার কথা বলা হয়৷