শংকর দাস, বালুরঘাট: ক্রিকেট দুনিয়ার এক ঝাঁক তাঁরকা ব্যাটে-বলে ঝড় তুলতে বালুরঘাট স্টেডিয়ামে নামছেন। শনিবার থেকে দক্ষিণ দিনাজপুরের এই মাঠেই শুরু হচ্ছে রঞ্জি ট্রফির ক্রিকেট ম্যাচ। ১১ থেকে ১৪ জানুয়ারি পর্যন্ত এই ম্যাচে বালুরঘাট স্টেডিয়াম মাঠে মুখোমুখি হচ্ছে মণিপুর ও বিহার।

দুই দলেই রয়েছেন ব্যাটিংও বোলিং-এ একাধিক প্রতিষ্ঠিত খেলোয়াড়। মণিপুর দলের যেমন রেক্স সিং অনুর্ধ-১৯ কোচবিহার ট্রফিতে অরুণাচল প্রদেশের বিরুদ্ধে একাই ১০ উইকেট নিয়েছেন। শুধু তাই নয়, চলতি মরশুমে চারটি ম্যাচে চব্বিশটি উইকেট নিয়েছেন তিনি। এছাড়াও রয়েছে বিশ্বজিৎ সিং৷ যিনি বিজওয়ারা ট্রফিতে সাতটি উইকেট নিয়ে হ্যাট্রিক-সহ রেকর্ড গড়েছে। ব্যাটিংএ কাঙ্গাবাম সিং ওরফে প্রিয়জিৎ-সহ অনেকেই রয়েছেন। প্রিয়জিৎ মণিপুর দলের ক্যাপ্টেনও।

অন্যদিকে বিহার দলেও ব্যাটিং-এ রয়েছেন ক্যাপ্টেন আশুতোষ আমন-সহ নিশান্ত কুমার মহম্মদ রহমতুল্লা ও কুমার মৃদুল। বোলিং-এ বিবেক কুমার সাবির খান ও শিবম কুমারের মত দুরন্ত খেলোয়াড়রা। দুই দলের খেলোয়াড়রা জেলায় পৌঁছেই শুক্রবার থেকে নেট প্র্যাকটিস ও গা-গরম করতে শুরু করে দেন। পাশাপাশি রঞ্জি ট্রফির চার দিনের এই ম্যাচকে ঘিরে সেজে উঠছে বালুরঘাট শহরের স্টেডিয়াম। মণিপুর ও বিহারের মধ্যে রঞ্জি ম্যাচকে ঘিরে দক্ষিণ দিনাজপুর তথা উত্তরবঙ্গে উন্মাদনা এখন তুঙ্গে উঠেছে। জেলার গঙ্গারামপুর বুনিয়াদপুর ও বালুরঘাট-সহ বিভিন্ন এলাকায় হোর্ডিং ফেস্টুন ও তোরণের মাধ্যমে দুই দলের খেলোয়াড়দের স্বাগত জানানো হয়।

২০১৯ সালের জানুয়ারি মাসে বালুরঘাটের এই স্টেডিয়ামেই অনুষ্ঠিত হয়েছিল কোচবিহার ট্রফি। সেই বার বালুরঘাট স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয়েছিল বাংলা ও মধ্যপ্রদেশ। বালুরঘাট স্টেডিয়ামের কনফারেন্স হলে সাংবাদিক সম্মেলন করে পিচ তথা মাঠের পরিকাঠামো সংক্রান্ত বিষয়গুলি তুলে ধরেন স্টেডিয়াম কর্তৃপক্ষ। উপস্থিত ছিলেন, মণিপুরের কোচ মনীশ ঝা ও দলের ক্যাপ্টেন কাঙ্গাবাম প্রিয়জিত সিং ও সিএবি’র এপেক্স কমিটির সদস্য গৌতম গোশ্বামী৷ বালুরঘাট স্টেডিয়ামের পিচ ও মাঠ নিয়ে ভূয়সী প্রশংসা করেছেন দুই দলের কোচ ও ক্যাপ্টেনরা। রঞ্জি ম্যাচে খেলা দেখার জন্য সকলের প্রবেশ অবাধ বলে জানিয়েছেন সিএবি’র এপেক্স কমিটির সদস্য গৌতম গোস্বামী।