মুম্বই: কানাড়া সাংবাদিক গৌরী লঙ্কেশের হত্যাকান্ড নিয়ে গভীর শোক প্রকাশ করলেন অস্কার বিজেতা সংগীত পরিচালক এ.আর রহমান। তিনি এদিন তাঁর আপকামিং “ওয়ান হার্ট- দি এ.আর রহমান কনসার্ট ফিল্ম”-এর ব্যপারে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন “ গৌরী লঙ্কেশ মৃত্যুতে আমি গভীর ভাবে শোকাহত। এ ধরনের ঘটনা ভারতবর্ষে অনভিপ্রেত…এ আমার ভারতবর্ষ নয়…আমি চাই দয়ালু আর প্রগতিশীল ভারত”। গত ৫ সেপ্টেম্বর তারিখে সাংবাদিক গৌরী লঙ্কেশ নৃশংস ভাবে খুন হন তাঁর বাড়ির কাছেই৷

আরও পড়ুন: গৌরী লঙ্কেশের খুনে হাত থাকতে পারে নকশালদের, মনে করছেন ভাই

এ.আর.রহমান তাঁর এই ছবি প্রসঙ্গে বলেন, এদেশে এখনও পর্যন্ত অ্যাকশন, রোমান্টিক ফিল্ম হয়েছে তবে কনসার্ট নির্ভর ছবি হয়নি। এ.আর রহমানের উত্তর আমেরিকাতে করা ১৪ টি কনসার্টের সব রিহার্সাল ফুটেজ ও তাঁর নিজস্ব ব্যান্ড-এর সদস্যদের নিয়ে তৈরি হচ্ছে এই ছবি। ছবি তৈরির সব খরচ “ওয়ান হার্ট” মিউজিক ব্যান্ডের নিজস্ব।

আরও পড়ুন: হুমকি পোস্ট! গৌরীর পর কি তাহলে শোভা দে, অরুন্ধতী রয়?

সংবাদ মাধ্যমের তরফে তাঁর বায়োপিক তৈরির কথা বললে, রহমান একটু হেসে বলেন “ আমি এখনও ইয়াং, আমার মৃত্যুর পর সেটা নিয়ে নিশ্চই কেউ চিন্তা করবে”।

প্রসঙ্গত, শুধু এ.আর রহমান নন, সাংবাদিক গৌরী লঙ্কেশ হত্যার তিব্র নিন্দা করেছেন বলিউডের অন্যান্য কলা-কুশলীরাও।

শাবানা আজমি ট্য়ুইট করেন, “গৌরী লঙ্কেশের মৃত্যু দুর্ভাগ্যজনক… দোষীদের কঠোরতম শাস্তি হওয়া উচিত”,

জাভেদ আখতার বলেন, “এই ধরনের মানুষ যদি খুন হন তবে কোন ধরনের মানুষ এ কাজ করে”।

আরও একধাপ এগিয়ে শিরীষ কুন্দ্রা বলেছেন, “যখন বুদ্ধিজীবিদের নিগৃহীত হতে হয়, তখন প্রতিবাদের শব্দ গুলো ‘বুলেট’এর মতো হওয়া উচিত৷”

এদেশে বর্তমান রাজনীতি যেভাবে মতপ্রকাশের অধিকারকে প্রভাবিত করছে তাতে দেশের কলা-কুশলীরা ও শিল্প- সাহিত্য-গনমাধ্যমের জন্য ‘কালাদিন’ আসতে চলেছে বলেই একাংশের মত৷

শেখর কাপুর ট্য়ুইট বক্তব্যে বলেছেন, “ মানুষ খুন যদি গণতন্ত্র হয় তবে আমরা ভুয়ো গণতন্ত্রে বাস করছি আমরা, যেখানে হিংসা মতামতের থেকেও বেশি গুরুত্ব পায়৷”

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।