স্টাফ রিপোর্টার, বহরমপুর: প্রেমিকার বিয়ে ঠিক হয়ে যাওয়ায় অভিমানে টাওয়ারের ওপর উঠে আত্মহত্যার চেষ্টা করল প্রেমিক৷ বুধবার বিকেলে ঘটনাটি ঘটেছে মুর্শিদাবাদের লালগোলা নলডহরি গ্রামে৷ গোটা ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে৷

স্থানীয় সূত্রে খবর, দীর্ঘদিন ধরে এই দু’জনের ভালোবাসার সম্পর্ক৷ কিন্তু হঠাৎ করে প্রেমিকার পরিবারের সদস্যরা বিয়ে ঠিক করেছেন৷ তাই সেই অভিমানে মোবাইল টাওয়ারের উপর উঠে আত্মহত্যার চেষ্টা করল প্রেমিক। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, লালগোলা নব পল্লী এলাকার এক যুবক সামিম শেখের সঙ্গে স্থানীয় এক যুবতীর ভালোবাসা সম্পর্ক ছিল৷ এলাকার বহু মানুষই এই ঘটনার কথা জানত৷

কিন্তু প্রেমিকার পরিবারের সদস্যরা অন্যত্র তার বিবাহ ঠিক করেন৷ তাই বুধবার বিকেলে এলাকার একটি বেসরকারি মোবাইল সংস্থার টাওয়ারে উঠে আত্মহত্যার চেষ্টা করে প্রেমিক সামিম শেখ। এই ঘটনা নজরে পড়ে স্থানীয়দের৷ স্থানীয়রাই লালগোলা থানায় খবর দেয়৷ কিছুক্ষণ পর ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে মাইক বেধে যুবককে বোঝায়। পুলিশের দীর্ঘ প্রচেষ্টার পর সামিম শেখ অবশেষে নিচে নেমে আসেন।

এই প্রসঙ্গে সামিম শেখের বাবা মুস্তাফা শেখ বলেন, ‘‘আমরা ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসি৷ আমাদের ছেলেকে আত্মহত্যার মুখ থেকে ফিরে পেয়ে খুশি আমরা৷’’ পাশাপাশি যুবকের এই কর্মকাণ্ডে কার্যত হতবাক এলাকাবাসী৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.