পূজা মণ্ডল, কলকাতা: আবারও প্রাইমারি শিক্ষক পদে চাকরি দেওয়ার নাম করে প্রতারণার অভিযোগ উঠল। বুধবার বিকাশ ভবনের সামনে থেকে হাতেনাতে গ্রেপ্তার করা হল প্রতারণাকারী দলের এক সদস্যকে। প্রতারণার শিকার একজন মহিলা। পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটালের বাসিন্দা নুরানি খাতুন।

আরও পড়ুন- টেট কেলেঙ্কারি: পাঁচ লাখ টাকায় মিলছে প্রাথমিক শিক্ষকের চাকরি?

মহিলার অভিযোগ, এই প্রতারণা চক্রের মূল চক্রী তাঁর কাছে প্রথমে মেল আইডি চায়। মেল আসে নুরানির আইডিতে। এরপর ফোন করে তাঁকে বলা হয় তিনি চাকরি পেতে চলেছেন। বুধবার ২০,০০০ টাকা সঙ্গে নিয়ে তাঁকে আসতে হবে বিকাশ ভবনে। সেই মত আজ ২০ হাজার টাকা সঙ্গে নিয়ে বিকাশ ভবনে আসেন তিনি। আসার পরই তাঁকে টাকা চাওয়া হয়। মহিলা টাকা দিতে অস্বীকার করলে তাঁকে বলা হয় কিছু লাগবেই।

আরও পড়ুন- টেট কেলেঙ্কারি: পাঁচ লাখ টাকায় মিলছে প্রাথমিক শিক্ষকের চাকরি?

সুযোগ মতো টাকা হাতিয়ে নিয়ে মহিলাকে ঘোরাতে থাকেন অভিজুক্ত। বলে, টাকা দিন আমাদের লোক আসবে। লোক এসে ডেকে নিয়ে যাবে। এরপর দলের অন্য একজনকে পাঠিয়ে নিজে কেটে পরে। তারপর আরও একজনকে পাঠান কাগজে সই করিয়ে নেওয়ার জন্য।

আরও পড়ুন- টেট কেলেঙ্কারি: পাঁচ লাখ টাকায় মিলছে প্রাথমিক শিক্ষকের চাকরি?

কিন্তু ভাবগতিক সুবিধের নয় বুঝে সই করতে অস্বীকার করেন মহিলা। উত্তেজিত হয়ে চিৎকার করতে থাকলে স্থানীয়রা আসেন ও সমস্ত ঘটনা শুনে তাঁকে গণপ্রহার দেয়। পুলিশকে খবর দেওয়া হলে বিধান নগর উত্তর থানার পুলিশ এসে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে। অভিযুক্তদের নাম এখনও জানা যায়নি।