স্টাফ রিপোর্টার, বর্ধমান: যুব বিশ্বকাপ ফুটবলের সেমি ফাইনাল ও ১৭ অনুর্ধ ফুটবল ম্যাচের ফাইনাল খেলা হবে খোদ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নকসা করা ফুটবলেই৷ বর্ধমান টাউন হলে প্রাক পূজা বস্ত্র মেলার উদ্বোধন করতে এসে একথা জানান রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ দপ্তরের মন্ত্রী তথা তৃণমল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি স্বপন দেবনাথ।

স্বপনবাবু জানান, আগামী অক্টোবর মাসে যুবভারতী স্টেডিয়ামে যুব বিশ্বকাপের খেলায় যে বল ব্যবহার করা হবে তার নকসা প্রস্তুত করেছেন খোদ মুখমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। ‘জয়ী’ নামে বলের নামকরণও করেছেন তিনি৷ ফাইনাল ম্যাচের জন্য বলগুলি তৈরি করেছেন বর্ধমানের কালনার কেশবপুর গ্রামের তিন মহিলা অঞ্জলী ভট্টাচার্য, ভগবতী মজুমদার ও চিত্রলেখা দাস। বর্ধমানের খ্যাতনামা খেলোয়াড় গণেন্দ্র বন্দোপাধ্যায় বলেন, ‘‘ফিফার এই বিশ্বকাপে যে ফুটবলে খেলা হয় তার মান নির্ধারণ করে ফিফার বিশেষজ্ঞ কমিটি। এমনকি এজন্য নির্দিষ্ট কোম্পানীর সঙ্গে ফিফার চুক্তিও থাকে। তাই মুখ্যমন্ত্রীর এই ‘জয়ী’ ফুটবলকে ফিফা অনুমোদন দিলে তা রাজ্যের বুকে ইতিহাস সৃষ্টি করবে।’’

জেলা গ্রামীণ উন্নয়ন বিভাগ এবং বৈকুণ্ঠপুর-১ সূর্যমুখী মহিলা স্বনির্ভর গোষ্ঠীর উদ্যোগে এবারই প্রথম এই মেলা শুরু হল। চলবে ১৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। স্বনির্ভরগোষ্ঠী মহিলাদের আরও এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে স্বপনবাবুর পরামর্শ, ‘‘অন্যের কাছে হিসেবের খাতা না রেখে নিজেরাই তা তৈরি করুন৷ নিয়ম করে গোষ্ঠীর সদস্যদের সঙ্গে বৈঠক করুন৷’’ গ্রুপের টাকা সুদে খাটানো কিংবা ব্যাংকের টাকা নিজেদের মধ্যে ভাগ করে নেওয়ার মত প্রবণতা বন্ধ করারও আবেদন জানান তিনি৷ অনুষ্ঠানে উপস্থিত বিভিন্ন ব্যাঙ্ক আধিকারিকদের উদ্দেশে মন্ত্রীর আহ্বান, ‘‘আরও বেশি করে স্বনির্ভরগোষ্ঠীর মহিলাদের ঋণ দেওয়ার ব্যবস্থা করুন৷’’