নয়াদিল্লি: কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই আসতে চলেছে ভারতের দ্বিতীয় স্ট্র্যাটেজিক নিউক্লিয়ার সাবমেরিন, অরিদমন৷ তবে সূত্র মতে, নৌসেনাবাহিনীর প্রত্যাশা বাড়িয়ে অদূর ভবিষ্যতে আরও বড় পরিকল্পনা নিয়ে এবং আরও অনেকটাই শক্তিশালী হয়ে আসতে পারে এই সাবমেরিন৷

আরও পড়ুন: দ্রুত গতিতে পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে চিনের ‘স্পেস স্টেশন’

সূত্রের খবর, অরিদমনের ক্ষেত্রে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি চলছে৷ এর তিনটি মডিউল একত্রিত করা হয়েছে৷ দ্য হিন্দু-র খবর অনুযায়ী, নভেম্বরের শেষের দিকে লঞ্চ করা হতে পারে এটি৷ অন্য একটি সূত্র অনুযায়ী, নভেম্বরে এই লঞ্চ নাও হতে পারে, সেক্ষেত্রে ডিসেম্বের অবশ্যই চলে আসবে এটি৷ একবার অরিদমন লঞ্চ হয়ে গেলে তা সমুদ্র-বন্দরে পরীক্ষামূলকভাবে চলবে৷

আরও পড়ুন: যুদ্ধ লেগে গেল নাকি? রানওয়েতে থেকে উড়ে যাচ্ছে রাফায়েল থেকে F 22

ভারত মহাসাগরে চিনের উপস্থিতি থাকা সত্ত্বেও ভারতের মাটিতে তৈরি এই পরমাণু শক্তিসম্পন্ন সাবমেরিনটির উপস্থিতি দেশের ক্রমবর্দ্ধমান শক্তিরই যে পরিচয় দেবে, বলাই বাহল্য৷ গত বছর অক্টোবরে ভারত তার প্রথম ব্যালিস্টিক পরমাণু সাবমেরিন, আইএনএস আরিহান্ট লঞ্চ করে৷ আরিহান্ট শ্রেণিরই এই অরিদমন আরও অনেক উন্নতমানের৷ একই শ্রেণির তৃতীয় সাবমেরিনের নির্মাণও শুরু হয়ে গিয়েছে ইতিমধ্যেই৷ আগামী এক বছরের মধ্যে এর নির্মাণ সম্পূর্ণ হবে বলে মনে করা হচ্ছে৷

আরও পড়ুন: মার্কিন ফ্রিগেটের চলাচল ঠেকাতে দুটি যুদ্ধবিমান, হেলিকপ্টার পাঠাল বেজিং

আরিহান্ট এবং অরিদমনের মতো একই ধরনের এই সাবমেরিন আরও উন্নতমানের অস্ত্রে সুসজ্জিত হবে৷ ২০১৮সালের শেষের দিকে এটি লঞ্চ করা হতে পারে বলে জানা গিয়েছে৷ অরিদমন লঞ্চের ঠিক পরেই বিশাখাপত্তনমে তৃতীয় সাবমেরিনটির শেষ মুহূর্তের কাজও শুরু হয়ে যাবে বলে মনে কার হচ্ছে৷