নয়াদিল্লি: ভালোবাসার দিনের পরেই ধ্বংস হতে পারত পৃথিবী। বরাত জোরে রক্ষা পেল মানব সভ্যতা। শনিবার পৃথিবীর কান ঘেঁষে বেরিয়ে গেল একটি গ্রহাণু।

নাসা জানিয়েছে, তীব্র গতিতে পৃথিবীর দিকে ছুটে আসছিল একটি বিশাল আকারের গ্রহাণু। শনিবার ভোর ছটা ৫ নাগাদ সেটি পৃথিবীর কানঘেঁষে বেরিয়ে যায়। রক্ষা পায় পৃথিবী। নাসা জানিয়েছে, পৃথিবী থেকে ৫.৭৭ মিলিয়ন কিলোমিটার দূর থেকে চলে গিয়েছে ওই গ্রহাণুটি ফলে বিপদ হয়নি।

মহাকাশ বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, এই গ্রহাণু আকারে যে কোনও ইমারতের থেকে বিশাল বড়। এই ‘ক্ষতিকারক’ গ্রহাণু পৃথিবীর স্থলভাগে আঘাত হানলে পুরো একটা মহাদেশ ধ্বংস হওয়ার শঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন বিজ্ঞানীরা। এটি চওড়ায় ছিল ১ কিলোমিটার। ঘণ্টায় গতিবেগ ছিল ৫৪,৭১৭ কিলোমিটার।

এই গ্রহাণুর সঙ্গে সংঘর্ষ হলে কয়েক লক্ষ মানুষের মৃত্যু ছিল একেবারে অবধারিত। পৃথিবী থেকে মানব সভতা মুছে যাওয়ার আশঙ্কাও ছিল। তবে আসল কথা, তেমন কিছুই হয়নি। রক্ষা পেয়েছে প্রিয় পৃথিবী।

উল্লেখ্য, কোটি কোটি বছর আগে এর চেয়েও বড় গ্রহাণুরা ক্রমান্বয়ে পৃথিবীর সঙ্গে ধাক্কা খেত। পরে আকাশগঙ্গার পরিস্থিতি শান্ত হয়ে ধীরে ধীরে জলবায়ুর বিরাট পরিবর্তন হয়ে এই পৃথিবীর সৃষ্টি হয়েছে।