হরিয়ানা: স্ত্রী, সন্তানদের হত্যা করে আত্মঘাতী যুবক৷ ঘটনা হরিয়ানার এক গ্রামের৷ পুলিশের প্রাথমিক অনুমান সাংসারিক অশান্তির জেরেই এই ঘটনা৷

পুলিশ সুত্রে জানা গিয়েছে, আত্মঘাতী যুবক সন্দীপ পেশায় বাস চালক৷ দীর্ঘক্ষণ ঘরের দরজা বন্ধ থাকায় মৃতের ভাই বিকাশ সন্দীপকে ডাকাডাকি শুরু করে৷ কিন্তু সাডা় না মেলায় দরজার তালা ভেঙে ঘরে ঢোকে সে৷ এরপরই দেখা যায় পাখায় কাপড়ের ফাঁস দিয়ে ঝুলে রয়েছে সন্দীপ৷ মাটিতে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছে বৌদি ও দুই সন্তানের দেহ৷ বিকাশ পুলিশ কে ফোন করে ঘটনার বিষয়ে জানায়৷ ঘটনাস্থলে এসে এই চার জনের মৃত দেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠায় পুলিশ৷

তদন্তে প্রখামিক অনুমান, প্রথমে স্ত্রী এবং সন্তানদের গলা টিপে হত্যা করে সন্দীপ৷ তার পর কাপড়ে ফাঁস দিয়ে আত্মঘাতী হয় সে৷ পুলিশ তদন্তে নেমে জানতে পেরেছে প্রায় রোজই স্বামী স্ত্রীর মধ্যে অশান্তি হত৷ তবে ঠিক কি কারণে তাদের সংসারে বিবাদ ছিল তা স্পষ্ট নয়৷ পরিকল্পনা করেই সন্দিপ এই ঘটনা ঘটিয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে৷ ঘটনার জেরে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে৷ পুলিশ তাদের পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে৷ মৃতদের মোবাইল বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে৷ তবে এই ঘটনার পিছনে অন্য কোনও কারণ রয়েছে কিনা তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷