স্টাফ রিপোর্টার, বারুইপুর: গৃহস্থের বাড়িতে দোতলার ছাদে কাজ করতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে পড়ে যান এক শ্রমিক। ছাদ থেকে নীচে গিয়ে পড়েন লোহার রডের উপর। আর সেখানেই ঘটে বড়সড় বিপত্তি৷ তার পেটে তিনটি রড ঢুকে যায়। গুরুতর জখম অবস্থায় তাকে বারুইপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসা হয় চিকিৎসার জন্য। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পর উদয় সরদার নামে ওই ব্যক্তিকে কলকাতার চিত্তরঞ্জন ন্যাশানাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়৷ ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগণার বারুইপুর থানার হারাল এলাকায়।

উল্লেখ্য, দক্ষিণ ২৪ পরগণার জীবনতলা থানার দক্ষিণ নারায়ণতলার বাসিন্দা উদয় সরদার৷ ওই ব্যক্তি পেশায় রাজমিস্ত্রী৷ অন্যান্য দিনের মত বুধবার সকালে বাড়ি থেকে বেড়িয়ে বারুইপুর থানার অন্তর্গত হারাল এলাকায় একটি নির্মীয়মাণ বাড়িতে কাজ করতে এসেছিলেন তিনি। সেখানে দোতলার ছাদে কাজ করার সময় আচমকা উপর দিয়ে যাওয়া বিদ্যুতের তাঁর উদয়বাবুর শরীরের সংস্পর্শে আসতেই বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে নীচে পড়ে যান তিনি। সেই সময় নীচে থাকা রড পেটের ডান দিকে ঢুকে যায় ওই ব্যক্তির।

এই ঘটনা চোখে পড়তেই অন্যান্য শ্রমিকরা তাকে উদ্ধার করে বারুইপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসেন৷ সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পর কলকাতায় স্থানান্তরিত করা হয় তাকে। রাতেই সেরে ফেলা হয় অস্ত্রোপচারের কাজ৷ পরে চিকিৎসকরা জানায় বর্তমানে ওই ব্যক্তির শারীরিক অবস্থার উন্নতি হচ্ছে৷