কলকাতা: শুক্রবার সকালে বড়বাজারের কলুটোয়ায় কাগজের গুদামে বিধ্বংসী আগুন লাগে। দমকলের ৫টি ইঞ্জিনের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে৷ দমকল সূত্রে খবর, শুক্রবার বেলা সোয়া এগারোটা নাগাদ বড়বাজারে আগুন লাগে৷

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে দমকলের ২টি ইঞ্জিন পৌঁছায়৷ পরে আরও তিনটি ইঞ্জিন পাঠানো হয়৷ মোট ৫টি ইঞ্জিন কয়েক ঘন্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে৷ রাস্তা সরু থাকায় প্রথমে ঘটনাস্থলে দমকলের ইঞ্জিন ঢুকতে সমস্যা হয়৷

এদিন বড়বাজার এলাকার একটি বাড়ির চার তলায় আগুন লাগে৷ ঘিঞ্জি এলাকা হওয়ায় আগুন আতঙ্ক দেখা দেয়৷ দাহ্য পদার্থ থাকায় আগুন ছড়াতে থাকে৷ বাড়িটি পুরনো হওয়ায় ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত৷ এক সময় বাড়ির একদিকের দেওয়াল ধসে রাস্তায় পড়ে৷ তবে কীভাবে আগুন লাগল, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷

দু’দিন আগে আগুনে আগুন লেগেছিল ক্যালকাটা ইন্টারন্যাশনাল ক্লাবে৷ পুড়ে যায় ক্লাবের আসবাবপত্র৷ দমকলের ৪টি ইঞ্জিন কয়েক ঘন্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে৷ দমকল সূত্রে খবর, বুধবার দুপুর ১২ টা নাগাদ ক্যালকাটা ইন্টারন্যাশনাল ক্লাব-এর দু’তলায় আগুন লাগে৷ খবর পেয়ে দমকলের ৪টি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে পৌঁছায়৷ এবং কয়েক ঘন্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে৷

দক্ষিণ কলকাতার নামজাদা এই ক্লাবের আগুন লাগার সঠিক কারণ জানা যায়নি৷ তবে দমকলের প্রাথমিক অনুমান শর্ট সার্কিট থেকেই আগুন লাগতে পারে৷ কিছুদিন আগে বিধ্বংসী আগুন লাগে সিটি সেন্টার ২ এর কাছে ঝুপড়িতে আগুন লাগে। সেদিনও দুপুর সাড়ে ১২ টা নাগাদ আগুন লেগেছিল। ঘটনাস্থল ছিল রাজারহাট নিউটাউনের আটঘরা পূর্বপাড়া৷

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় দমকলের ৫ টি ইঞ্জিন । সূত্রের খবর, আগুন লাগার সময় বেশ কয়েকটি গ্যাস সিলিন্ডার ফাটার শব্দ পাওয়া গিয়েছে। তবে হতাহতের কোনো খবর নেই । অনেকগুলো ঝুপড়ি পুড়ে ছাই হয়ে গিয়েছে বলে খবর।

স্থানীয়দের অভিযোগ, ঝুপড়িতে আগুন লাগার পর দমকলকে খবর দেওয়া হলেও, অনেক দেরি করে দমদম এসে পৌঁছায়। ততক্ষণে সব শেষ। প্রথমে স্থানীয় বাসিন্দারাই আগুন নেভানোর কাজে হাত লাগান। ঝুপড়িতে থাকা জিনিসপত্র বাঁচানোর চেষ্টা করেন। ঝুপড়ির পাশেই রয়েছে আবাসন। একের পর এক বিস্ফোরণে তারা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। অনেকে ঘরের বাইরে বেরিয়ে আসেন।

এদিকে দমকলের দাবি, সংকীর্ণ রাস্তা থাকায় প্রথমে ঘটনাস্থলে গাড়ি পৌঁছতে পারছিল না। পরে দমকলের ৫টি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। কয়েক ঘন্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। ঝুপড়িতে দাহ্য পদার্থ থাকায় প্রথমে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। তাছাড়া একের পর এক গ্যাস সিলিন্ডার ফেটে আগুন আরও ছড়িয়ে পড়েছিল। দমকলের প্রাথমিক অনুমান, শর্ট সার্কিট থেকে আগুন লেগে থাকতে পারে৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ