স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: গঙ্গার ঘাটে ফুটবল আনতে গিয়ে মর্মান্তিক ভাবে জলের তোড়ে তলিয়ে গেল এক নাবালক। শনিবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটেছে শ্যামনগর রত্নেশ্বর গঙ্গার ঘাটে। ফুটবল আনতে গিয়েই ডুবে যায় ওই নাবালক। নিখোঁজ ওই নাবালকের নাম সুমিত সিং(১৪)। তাঁর খোঁজে এদিন গঙ্গায় নামানো হয় ডুবরি। ঘটনাস্থলে আসে বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী এবং নোয়াপাড়া থানার পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, শনিবার দুপুরে সে অন্যান্য দিনের মতোই শ্যামনগর কুলি লাইন এলাকার বাচ্চাদের সঙ্গে ফুটবল খেলছিল। শ্যামনগর রত্নেশ্বর গঙ্গার ঘাট সংলগ্ন রেলওয়ে সাইডিং মাঠে তারা খেলা করছিল। হঠাৎই তাঁদের ফুটবলটি চলে যায় পার্শ্ববতী গঙ্গায়। তখন সুমিত ওই ফুটবল আনতে গঙ্গায় নামলে সে তলিয়ে যায়। সুমিতের অন্য বন্ধুরা এই দৃশ্য দেখে চিৎকার জুড়ে দেয়। সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে স্থানীয় বাসিন্দারা জড়ো হয়ে যায়। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে আসে নোয়াপাড়া থানার পুলিশ। আসে বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের দল, গঙ্গার জলে নামানো হয় ডুবুরি। তবে এদিন সন্ধ্যা পর্যন্ত সুমিত সিংয়ের কোনও খোঁজ মেলেনি।

সুমিতের বাবা রতন সিং পেশায় একজন দিনমজুর। ছেলেকে সপ্তম শ্রেণী পর্যন্ত পড়িয়েছিলেন। রতন বাবু বলেন,”ও ফুটবল খেলতে খুব ভালবাসত। আমার ছেলে সাঁতার জানত না। বন্ধুদের সঙ্গে রেলের সাইডিং মঠে রোজই ফুটবল খেলতও। আজকে গঙ্গায় ফুটবল পড়ে গেলে আমার ছেলে বলটি আনতে গঙ্গায় নামে, তারপরই ও তলিয়ে যায়।” এই ঘটনায় ব্যপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে শ্যামনগর কুলি লাইন এলাকায়। নোয়াপাড়া থানার পুলিশ গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। নিখোঁজ ওই নাবালকের খোঁজ চলছে শ্যামনগর রত্নেশ্বর গঙ্গার ঘাটে।