মালদহ: চোর অপবাদ দিয়ে এক যুবককে মারধরের অভিযোগ উঠল তাঁর বন্ধুদের বিরুদ্ধে৷ ঘটনাটি ঘটেছে মালদহের ইংরেজবাজার থানার যদুপুর বিধাননগর এলাকায়। চোখে গুরুতর আঘাত নিয়ে ওই যুবক মালদহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

অভিযোগ শুক্রবার রাতে কয়েকজন বন্ধু ওই যুবককে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়৷ এরপর সারারাত আর বাড়ি ফেরেনি সে। শনিবার ভোরে গুরুতর আহত অবস্থায় জাতীয় সড়কের পাশ থেকে স্থানীয় বাসিন্দারা তাকে উদ্ধার করে৷ মালদহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে৷

আরও পড়ুন: জঙ্গলমহলের স্কুলে বসল সিসিটিভি

আক্রান্তের পরিবারের অভিযোগ, মোবাইল চোর অপবাদ দিয়ে ওই যুবককে মারধর করেছে তার বন্ধুরা। ঘটনায় সুবল মণ্ডল-সহ চারজনের বিরুদ্ধে ইংরেজবাজার থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে। ঘটনার পর থেকে ফেরার অভিযুক্তরা। তদন্ত শুরু করেছে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ।

আক্রান্তের পরিবারের এক সদস্য জানান, তাঁদের বাড়ির ছেলেকে মিথ্যা ফাঁসানো হয়েছে৷ বন্ধুবান্ধবরা ডেকে নিয়ে গিয়ে মদ খাইয়েছে, মারধর করেছে৷ এরপর চোরের বদনাম দিয়েছে৷ অভিযোগ, সবসময়ই বন্ধুরা ওই যুবককে বিরক্ত করে৷ বাড়িতে খেতে, বসতে পর্যন্ত দেয় না৷ যখন তখন এসে ডেকে নিয়ে চলে যায়৷

আরও পড়ুন: ছবিতে ফিরে দেখা ২১ জুলাই…

শুক্রবার রাতেও তেমনটাই ঘটে৷ হঠাৎই কয়েকজন এসে ডেকে নিয়ে যায় ওই যুবককে৷ তখন প্রায় রাত তিনটে হবে৷ এরপর সাড়ে পাঁচটা নাগাদ বাড়ির লোকজন জানতে পারে চোর বদনাম দিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয়েছে তাঁকে৷ চোখে, থুতনিতে, হাঁটুতে চোট গুরুতর৷

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।