স্টাফ রিপোর্টার, মালদহ: লকআপে এক ব্যক্তির মৃত্যুর ঘটনায় বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে মারার অভিযোগ উঠল পুলিশের বিরুদ্ধে। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে, মালদহের বৈষ্ণবনগর থানায়। যদিও পিটিয়ে মারার অভিযোগ অস্বীকার করেছে পুলিশ। লকআপের মধ্যে হার্ট অ্যাটাকেই অভিযুক্তের মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি পুলিশ কর্তাদের।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত ব্যক্তির নাম বাবলু শেখ। তার বিরুদ্ধে গাঁজা কারবারের অভিযোগ রয়েছে। এই অভিযোগের ভিত্তিতেই বৃহস্পতিবার রাতে বাবলুকে গ্রেফতার করে বৈষ্ণবনগর থানার পুলিশ।

এদিকে মৃতের পরিবারের সদস্যরা দাবি করে জানিয়েছেন, মৃতের বিরুদ্ধে কোনও মামলা নেই। বিনা কারণে, তাকে রাতের অন্ধকারে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। এরপর পুলিশ অন্যায় ভাবে মারধর করে তার উপর। যদি সে দোষী হয় তাহলে তার বিচার হবে। মারধোরের কারনেই তার মৃত্যু হয়ছে। যে সমস্ত পুলিশ এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত রয়েছে তাদের কঠৌর শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তাঁরা।

এই বিষয়ে কালিয়াচক ৩নম্বরের মেম্বার সারিয়াতুল ইসলাম বলেন, ”আমরা ঘটনার খবর পেয়ে হাসপাতালে আসি। সেখানে গিয়ে দেখি তার মৃত্যু হয়েছে। কে আসামী আছে, কে পোস্ত চাষ করছে সেটা পুলিশ প্রশাসন ব্যবস্থা নিক। কিন্তু, এইভাবে একজন লোককে রাতের অন্ধকারে তুলে নিয়ে নিয়ে এসে মারধর করা এটা ঠিক নয়। আমরা যতটা জানি ওই ব্যক্তি খুব সাদাসিধা লোক ছিল। আমরা এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। তার সঙ্গে সঙ্গে যে সমস্ত অফিসার এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত তাদের কঠোর শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। আমরা জেলা পুলিশ সুপারের কাছে আবেদন জানাবো যাতে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হয়।” যদিও গোটা বিষয়টি নিয়ে জেলা পুলিশ সুপারির কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।