লখনউ: এমন কখনও শোনা গেছে বিয়ে হয়না বলে কেউ মোবাইলের ব্যাটারি পর্যন্ত খেয়ে ফেলতে পারেন? অদ্ভুত হলেও এটাই সত্যি৷ বিয়ে হচ্ছেনা বলে কেউ কেউ এতটাও মরিয়া হয়ে উঠতে পারেন৷ বয়স বেড়ে যাচ্ছে অথচ এখনও চার হাত এক হলনা কোনও মেয়ের সঙ্গে এটাই যত সমস্যার কারণ৷ এই সমস্যার সমাধান করতেই হবে ভেবে তিনি আশ্রয় নেন এক তান্ত্রিকের৷

সেই তান্ত্রিকের চক্করে পড়ে তিনি এমন অনেক কিছু খান যা একজন সাধারণ মানুষ খেতে পারেননা৷ এই মামলাটি খুব সম্প্রতি সামনে এসেছে৷ ঘটনাটি উত্তর প্রদেশের হরদোই জেলার৷ মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী জানা গিয়েছে তান্ত্রিকের কথা মতই তাড়াতাড়ি বিয়ে হওয়াতে ওই মোবাইলের ব্যাটারি, চাবি, ধারাল তার এমনকি কাঁচ পর্যন্ত খেয়ে ফেলেছেন৷

একটি জাতীয় সংবাদ মাধ্যমের খবরে প্রকাশ হরদোই জেলার বিলগ্রামের বাসিন্দা অজয় দ্বিবেদীর বয়স বেড়ে 4’ হয়ে গিয়েছে কিন্তু এখনও পর্যন্ত তাঁর বিয়ে হয়নি৷ এই সমস্যার সমাধান করতে তিনি এক তান্ত্রিকের কাছে যান৷ তান্ত্রিক তাঁকে উপায় বাতলে দেন৷ জীবনের প্রতি নিরাশ হয়ে পড়া ওই ব্যক্তি তান্ত্রিকের দেওয়া সমাধানই মেনে নেন৷

জানা গিয়েছে শরীরের অবস্থা ভাল না হওয়ার কারণেই তাঁর বিয়ে হচ্ছেনা৷ শরীর ভাল না হওয়ার কারণেই বা বলা ভাল সুস্বাস্থ্য না হওয়ার কারণেই তাঁকে অনেকে বলেন তাঁর উপর কেউ তুকতাক করেছে৷ তাঁকে বোঝানো হয় এই কারণেই তাঁর শরীর ভাল থাকেনা ও বিয়ে হচ্ছেনা৷ এই কথা শুনে ও লোকজনের বাতলে দেওয়া উপায়েই অজয় তান্ত্রিকের কাছে পৌঁছন৷ তান্ত্রিক বলে “আমি যা বলব তা অক্ষরে অক্ষরে পালন করতে হবে৷ তাহলেই বিয়ে হয়ে যাবে৷”

তান্ত্রিক বলে “তোমার কাছে মোবাইল, ঘড়ি বা যা যা জিনিস রয়েছে তা চিবিয়ে খেয়ে ফেলো৷” এরপরেই অজয় তাঁর মোবাইল, ঘড়ি, মোবাইলের ব্যাটারি, ক্যামেরার লেন্স আর গাড়ির চাবি সমেত বেশ কিছু জিনিস খেয়ে ফেলেন৷ কিন্তু ওই অবিবাহিত পুরুষের পেটে যখন যন্ত্রণা শুরু হয় তখন তা সহ্য করতে না পেরে তিনি চিকিৎসকের কাছে যান৷

একটি বেসরকারি হাসপাতালের চিকিৎসক অজয় দ্বিবেদীর পেটের এক্সরে করেন৷ অজয়ের এক্সরে রিপোর্ট দেখে চমকে যান চিকিৎসক৷ এক্সরে তে বেশ কিছু জিনিস দেখতে পান তিনি৷ সেসবই ধাতব বস্তু৷ এরপরই তাঁকে অপারেশন করাতে বলা হয়৷ অপারেশনের পর চিকিৎসকরা দেখেন তাঁর পেট তেকে সেসব জিনিস বের করা হয়৷ সার্জন এসকে সিং জানান ওই যুবক একটি রোগের শিকার হয়ে পড়েছে৷ আত্মহত্যার পরিস্থিতিতে মানুষ এরকম জিনিস খেয়ে ফেলে৷ শিশুরাও না জেনে এরকমই কিছু ধাতব জিনিস খেয়ে ফেলে কিন্তু অজয় সেগুলিই খেয়ে ফেলেছেন জেনে বুঝেই৷ শুধুমাত্র এই ভেবে যে এসব খেয়ে ফেললেই খুব তাড়াতাড়ি তাঁর বিয়ে হয়ে যাবে৷