নয়াদিল্লি: করোনা মোকাবিলায় দেশজুড়ে চলা লকডাউনের জেরে দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ রেল পরিষেবা। যদিও জরুরিকালীন ভিত্তিতে রেল পরিষেবা চলছে। এদিকে, করোনার প্রকোপ ক্রমেই দেশে বাড়তে থাকায় আগামী ১২ অগাস্ট পর্যন্ত লোকাল এবং এক্সপ্রেস ট্রেন চালানো হবে না বলে জানিয়েছে রেলমন্ত্রক।

তবে এখনও দেশের বিভিন্ন প্রান্তে আটকে রয়েছেন বহু মানুষ। তাঁদের ফেরাতেই বিশেষ ট্রেন চালাচ্ছে রেল। জানা গিয়েছে, দেশের নানা রাজ্যে আটকে থাকা মানুষজনকে তাঁদের রাজ্যে ফেরাতে আগামী সপ্তাহ থেকেই আরও ৯০টি বিশেষ ট্রেন চালানো হবে।

করোনা মোকাবিলায় দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। তবে আনলক ২ পর্বে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক ছন্দে ফেরার চেষ্টায় গোটা দেশ। যদিও দেশে করোনার সংক্রমণ বিদ্যুৎ গতিতে বাড়ার জেরে লোকাল ও এক্সপ্রেস ট্রেন পরিষেবা ১২ অগাস্ট পর্যন্ত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

কিন্তু এখনও দেশের বিভিন্ন প্রান্তে বহু মানুষ আটকে রয়েছেন। তাঁদের কথা ভেবেই বিশেষ কিছু ট্রেন চালানো হচ্ছে। দ্রুত আটকে থাকা সেইসব মানুষজনকে ফেরাতে এবার রেলমন্ত্রকের তরফে আরও ৯০টি ট্রেন চালানোর আবেদন পাঠানো হয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের কাছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক সেই আবেদন মঞ্জুর করলে আগামী সপ্তাহ থেকেই বাড়তি আরও ৯০টি ট্রেন চালাবে রেল।

দেশে করোনার সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। প্রতিদিন রেকর্ড হারে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে। সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কায় আগামী ৩১ জুলাই পর্যন্ত আন্তর্জাতিক বিমান পরিষেবাও বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রক। দেশজুড়ে বেড়ে চলা করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধেই এই সিদ্ধান্ত বলে জানিয়েছে ডিজিসিএ। আপাতত দেশের আকাশে ৩১ জুলাই পর্যন্ত বিদেশের কোনও বিমানও উড়বে না।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ