নেপিদ:ফের বড়সড় জঙ্গি হামলা৷ আবারও সেই আরাকান আর্মির গুলিতে ঝাঁঝরা হয়ে গেল মায়ানমারের পুলিশ বাহিনী৷ জানা গিয়েছে রোহিঙ্গা জনজাতি অধ্যুষিত পশ্চিম আরাকানে বড়সড় নাশকতায় অন্তত ৯ জন পুলিশ কর্মীর মৃত্যু হয়েছে৷ সম্প্রতি একই রকম হামলায় রক্তাক্ত হয়েছিল এই এলাকা৷

মায়ানমারের রাখাইন প্রদেশ (পূর্বতন আরাকান) দীর্ঘ সময় ধরে জাতিগত সংঘর্ষে রক্তাক্ত৷ গত বছর সেই সংঘর্ষ চরমে ওঠে৷ বর্মি সেনার উরর হামলা চালায় রোহিঙ্গা মুসলিমদের সশস্ত্র সংগঠন আরসা৷ তার পর সেনা অভিযান শুরু করে মায়ানমার সরকার৷ সেই সেনা অভিযান বিশ্বজুড়ে সামালোচিত হয়েছে৷ ১০ লক্ষ রোহিঙ্গা সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশের চট্টগ্রাম-টেকনাফে ঢুকে পড়ে৷ অভিযোগ উঠেছে, গণহত্যা চালাচ্ছে বর্মি সেনা৷

আরও পড়ুন: EXCLUSIVE- KLO জঙ্গি শিবির গুঁড়িয়ে দিল বর্মি সেনা, অধরা জীবন সিংহ

এসবের মাঝে আরাকানের সশস্ত্র বৌদ্ধ সংগঠন আরাকান আর্মি নতুন করে তাদের নাশকতা শুরু করেছে৷ সংবাদ সংস্থা এএফপি, চ্যানেল নিউজ এশিয়ার খবর- পশ্চিম আরাকানে অতর্কিতে হামলা চালিয়েছে আরাকান আর্মির জঙ্গিরা৷ সংগঠনটি পৃথক স্বশাসিত এলাকা গঠনের দাবিকে সামনে রেখে সশস্ত্র পথ নিতেই তৈরি হয়৷ মূলত বেআইনি মাদক ব্যবসা ও চোরা চালানের সঙ্গে যুক্ত আরাকান আর্মি৷

এদিকে হামলার পরেই আরাকানের পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন বর্মি সরকার৷ সরকারের সর্বচ্চো নেত্রী প্রধান তথা নোবেল জয়ী আউং সান সু কি-কে সব ঘটনা জানানো হয়েছে৷ আরাকানে সেনা অভিযান চালানোর সময় গণধর্ষণ ও গণহত্যার একের পর এক অভিযোগে তাঁরক অবস্থান নিয়ে তীব্র সামালোচনা হয় আন্তর্জাতিক মহলে৷